Sharing is caring!

চলচ্চিত্র জগতের আলোচিত-সমালোচিত নায়িকা পরীমনি। প্রায় দশ বছর আগের স্বামীকে তালাক না দিয়েই ফের বিয়ে করেছেন। সেটিকে অবৈধ অভিযোগ করে পরীমণি ও তার বর্তমান স্বামী অভিনেতা শরিফুল রাজকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন কুমিল্লার এক আইনজীবী। আগামী ৭ কর্মদিবসে নোটিশের জবাব না এলে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার কথাও বলা হয়েছে।

মঙ্গলবার ( ১৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে কুমিল্লা জজ কোর্টের আইনজীবী জয়নাল আবেদীন মাযহারী পরীমণি ও রাজকে পাঠানো নোটিশের তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে পরীকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানোর খবরে ফেসবুক লাইভে এসেছেন হিরো আলম। বুধবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ফেসবুক লাইভে এসে তিনি বলেন, ‘দশ বছর আগে যদি পরীমণির বিয়ে হয়ে থাকে, তাহলে এতদিন পর কেন আপনি উকিল নোটিশ পাঠালেন? এর আগেও যখন পরীমণি বিয়ে করেছিল তখন আপনি কোথায় ছিলেন? এখন নিশ্চই ভাইরাল হওয়ার জন্য এতদিন পর এই কাজ করছেন, না হলে মোটা অংকের টাকা চান!’

হিরো আলম আরও বলেন, ‘আপনারা সবাই জানেন পরীমণি অন্তঃসত্ত্বা, তিনি মা হতে চলেছেন। এই দুঃসময়ে কেন আপনি হট্টগোল পাকালেন? এর আগেও তো বিয়ে করেছে, তখনতো উকিল নোটিশ দিলেন না?’

অন্যদিকে পরীকে পরামর্শ দিয়ে হিরো আলম বলেন, ‘বিয়ে করবেন সমস্যা নাই, পথ ক্লিয়ার করে বিয়ে করেন। যাতে কেউ কথা না বলতে পারে। জানেন তো- আপনি, আমি, আমরা ভাইরাল পার্সন। কিছু করলে বাতাসের আগে ছড়ায়। এতে আমাদের সম্মানের ক্ষতি হয়। তাই বিয়ে করার আগে পথ ক্লিয়ার করে বিয়ে করতেন।’

এদিকে নোটিশদাতার দাবি, ২০১২ সালের ৪ এপ্রিল নায়িকা পরীমণি যশোরের কেশবপুর এলাকার যুবক ফেরদৌস কবির সৌরভকে বিয়ে করেন। এ সময় ১ লাখ টাকা কাবিনে বিয়েটি নিবন্ধন হয় কেশবপুর শহরের অফিসপাড়ার কাজী এম ইমরান হোসেনের মাধ্যমে। ফেরদৌসকে তালাক না দিয়েই পরীমণি গত ১৭ অক্টোবর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার শরীফুল রাজকে বিয়ে করে আইন লঙ্ঘন করেছেন।

Sharing is caring!