Sharing is caring!

সালমান খান ও সোমি আলির প্রেম কাহিনি যে কোনও বলিউডের চিত্রনাট্যকে হার মানাবে। নব্বইয়ের দশকে সালমান-সোমির রসালো প্রেম ছিল বি-টাউনের মুখরোচক খবর। তবে এই পাক তরুণীর হৃদয় ভাঙেন সালমান। তারপর বলিউডকেই অলবিদা জানিয়েছিলেন সোমি। নানান সময়ে প্রাক্তন প্রেম নিয়ে মন্তব্য করে থাকেন সোমি, তবে এবার এক্কেবারে বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসলেন ‘আও প্যায়ার করে’ নায়িকা।

দীর্ঘ ফিল্মি কেরিয়ারে কম নারীর সঙ্গে নাম জড়ায়নি সল্লু মিঁয়ার। সংগীতা বিজলানি, সোমি আলি, ঐশ্বর্য রাই বচ্চন, ক্যাটরিনা কাইফ থেকে ইউলিয়া ভান্তুর- তালিকাটা বেশ লম্বা। এবার নাম না করে সালমান খানকে সতর্ক করলেন প্রাক্তন প্রেমিকা সোমি, টেনে আনলেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চনকেও। বুধবার সোশ্যাল মিডিয়ার দেওয়ালে একটি পোস্ট লেখেন সোমি, লেখেন- ‘বলিউডের হারভে ওয়েনস্টেইন, তোমার মুখোশ একদিন খুলে যাবে। যে সমস্ত নারীদের সঙ্গে তুমি দুর্ব্যবহার করেছ, তারা একদিন তোমার সমস্ত সত্যি ফাঁস করে দেবে। ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের মতো’।

এই পোস্টের ইঙ্গিত যে সালমান খানের দিকে তা বুঝতে খুব বেশি অসুবিধা হওয়ার নয়। এমনকী এই পোস্টের সঙ্গে যে ছবি সোমি ব্যবহার করেছেন সেটিও ‘মেয়নে প্যায়ার কিয়া’ ছবি থেকেই নেওয়া সেটাও বুঝে নিতে অসুবিধা হওয়ার নয়। যদিও এই পোস্ট ভাইরাল হতেই সেটি মুছে দেন সোমি। চলচ্চিত্র দুনিয়ার সঙ্গে যুক্ত একাধিক নারী। পরবর্তীতে তিনি ‘থার্ড ডিগ্রী রেপ’ এবং ‘ফার্স্ট ডিগ্রী ক্রিমিনাল সেক্সুয়াল অ্যাক্ট’ এ দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। এবার সেই কুখ্যাত প্রযোজকের সঙ্গেই নাম না করে সালমানের তুলনা টানলেন সোমি।

সোমি নিজে একাধিক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ১৯৯১ সালে ‘ম্যায়নে প্যায়ার কিয়া’ ছবি দেখে সালমানের জন্য পাগল হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। এরপর ভারতে ‘পালিয়ে’ এসে তিনি বলিউডে কেরিয়ার শুরু করেন কেবলমাত্র সালমানকে বিয়ে করবার স্বপ্ন নিয়ে। ‘বুলন্দ’ নামের এক ছবিতে সালমানের নায়িকা হওয়ার সুযোগ পান সোমি। শ্যুটিংও শুরু হয়েছিল ছবির, তবে মাঝপথে আটকে যায় সেই প্রোজেক্ট। তবে আটকায় সোমি- সালমানের প্রেম। দীর্ঘ আট বছর চুটিয়ে প্রেম করেন তারা।

ব্রেক-আপ প্রসঙ্গে বছরখানেক আগে এক সাক্ষাৎকারে সোমি জানিয়েছিলেন, ২০ বছর হয়ে গেছে আমাদের সম্পর্ক ভাঙার। ও আমাকে ঠকিয়েছিল এবং আমি সম্পর্ক ভেঙে দিই, এবং মুম্বাই ছেড়ে চিরকালের মতো চলে যাই। হিসাবটা খুব পরিষ্কার’। সূত্র-হিন্দুস্তান টাইমস।

Sharing is caring!