Sharing is caring!

সয়াবিন তেলসহ নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধিতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যরা। জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, সরকার ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করে না, ব্যবসায়ীদের সহায়তা করে। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চলছে।

গতকাল মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) সংসদ অধিবেশনে বাণিজ্য সংগঠন বিল পাসের প্রক্রিয়ায় অংশ নিয়ে জাতীয় পার্টির সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকার ব্যর্থ হয়েছে। সরকার সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না। এর পরও সিন্ডিকেটের স্বার্থে বিলটি আনা হয়েছে। এর মাধ্যমে সিন্ডিকেট উৎসাহী হবে।

সংসদে একাধীক সদস্যের প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, সিন্ডিকেট হিসেবে যাদের কথা বলা হচ্ছে তারা কেউ রাজনীতি করেন না, তারা কেউ এমপি নন। সরকার চেষ্টা করে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী প্রতিনিয়ত ফলোআপ করছেন। তিনি বলেন, যে কেউ চাইলে তেল আমদানি করতে পারে। সরকার সিন্ডিকেট এটা ভাবার কারণ নেই। যুদ্ধের কারণে ভোজ্য তেলের দাম বেড়েছে, এটা তিনি কখনো বলেননি। প্রতি মাসে তেলের দাম নির্ধারণ করা হয়। এখন বিশ্ব বাজারে ভোজ্য তেলের দাম বেড়েছে। মন্ত্রী আরো বলেন, একটি টিসিবির ট্রাক থেকে ২৫০ জন মানুষকে পণ্য দেওয়া হয়। ছবিতে দেখানো হয় পণ্যের জন্য মানুষ দৌড়াচ্ছে। ৩০০ জন লাইনে দাঁড়ালে ৫০ জন পাবে না। বাকি ২৫০ জন যে পণ্য পেয়েছে সেটা দেখানো হয় না।

Sharing is caring!