Sharing is caring!

এবার ঈদে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুধু রাজধানীর কমলাপুর স্টেশনে হচ্ছে না। যাত্রীদের চাপ কমানোর লক্ষ্যে শহরের মোট পাঁচটি কেন্দ্রে টিকিট বিক্রি করা হবে। বুধবার (১৩ এপ্রিল) রাজধানীর রেলভবনে ঈদের আগাম টিকিট বিক্রি ও সার্বিক ব্যবস্থাপনা নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। কাউন্টারে টিকিট বিক্রি চলবে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

রেলমন্ত্রী বলেন, ৩ মে ঈদ হবে এটা ধরেই আমরা রেলের ঈদযাত্রার পরিকল্পনা সাজিয়েছি। টিকিট বিক্রি করার ক্ষেত্রে কমলাপুরে সমস্ত যাত্রীর একটা বিরাট ভিড় থাকে। যাত্রীদের সুবিধার জন্য এবার রাজধানীর পাঁচটি কেন্দ্র থেকে টিকিট বিক্রি করা হবে। কেন্দ্রগুলো হলো- কমলাপুর রেল স্টেশন, ঢাকা বিমানবন্দর স্টেশন, তেজগাঁও স্টেশন, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট স্টেশন ও ফুলবাড়িয়া (পুরাতন রেলওয়ে স্টেশন)।

কমলাপুর রেল স্টেশন থেকে সমগ্র পশ্চিমাঞ্চল ও খুলনাগামী স্পেশাল ট্রেনের টিকিট বিক্রি করা হবে। ঢাকা বিমানবন্দর স্টেশন থেকে চট্টগ্রাম ও নোয়াখালীগামী সব আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট মিলবে, তেজগাঁও স্টেশন থেকে ময়মনসিংহ ও জামালপুর রুটের সব আন্তঃনগর ট্রেন এবং দেওয়ানগঞ্জ স্পেশালের টিকিট বিক্রি হবে, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট স্টেশন থেকে মোহনগঞ্জ ও হাওর এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিট বিক্রি হবে এবং ফুলবাড়িয়া (পুরাতন রেলওয়ে স্টেশন) থেকে সিলেট ও কিশোরগঞ্জগমী সব আন্তঃনগর ট্রেন টিকিট পাওয়া যাবে।

নুরুল ইসলাম সুজন জানান, ইন্টারনেট ও অ্যাপের মাধ্যমে ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে সকাল ৮টা থেকে। কাউন্টারে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত টিকিট বিক্রি চলবে। ঈদের অগ্রিম টিকিকেট ফেরত নেওয়া হবে না। স্পেশাল ট্রেনের কোনো টিকিট অনলাইনে পাওয়া যাবে না, সেগুলো শুধুমাত্র স্টেশন কাউন্টার থেকে বিক্রি করা হবে।

এবার ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের জন্য ৬ জোড়া বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা রয়েছে রেলের। এর মধ্যে চাঁদপুর স্পেশাল-১ ও চাঁদপুর স্পেশাল-২ ট্রেন দুটি চট্টগ্রাম-চাঁদপুর রুটে চলবে ২৯ এপ্রিল থেকে ১ মে এবং ঈদের পর ৪ মে থেকে ৮ মে পর্যন্ত। এছাড়া ঢাকা দেওয়ানগঞ্জ রুটে দেওয়ানগঞ্জ স্পেশাল একই সময়ে চলাচল করবে। ঢাকা-খুলনা রুটে খুলনায় স্পেশাল ট্রেনটি বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে চলাচলকারী মৈত্রী এক্সপ্রেসের অতিরিক্ত রেক দিয়ে চলাচল করবে আগামী ২৯ এপ্রিল থেকে ১ মে পর্যন্ত।

এছাড়া ঈদের দিন ভৈরব বাজার ও কিশোরগঞ্জ রুটে শোলাকিয়ায় স্পেশাল-১ এবং ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ রুটে শোলাকিয়ায় স্পেশাল-২ চলাচল করবে বলে জানান রেলমন্ত্রী। তিনি বলেন, ঈদের আগের ৭ দিন, অর্থাৎ ২৫ এপ্রিল থেকে ঈদের আগের দিন পর্যন্ত আন্তঃনগর ট্রেনগুলোর সাপ্তাহিক বিরতি থাকবে না। ঈদের পরে ডে অফ কার্যকর করা হবে। সাপ্তাহিক বিরতি না রাখায় অতিরিক্ত ৯২টি আন্তঃনগর ট্রেন বিশেষভাবে পরিচালনা করতে পারবে রেলওয়ে। ঈদের দিন কোনো আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল করবে না।

Sharing is caring!