Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

 

নোয়াখালীর চাটখিলে স্কুলের সহপাঠীদের বিক্ষোভে এক কিশোরীর (১৩) বাল্য বিবাহ পন্ড করে দিয়েছে প্রশাসন। বুধবার (২২ জুন) দুপুরের দিকে উপজেলার ৪নং বদলকোট ইউনিয়নের মধ্য বদলকোট গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

 

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চাটখিল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এ এস এম মোসা বলেন, বদলকোট ইউনিয়নের দারুল ইসলাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণী পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর বিয়ে হচ্ছে বলে জানান বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। ওই কিশোরীর সহপাঠীরা তার বিয়ের খবর শুনে লাল পতাকা হাতে ওই কিশোরীর বাল্য বিবাহ বন্ধের দাবিতে তার বাড়িতে বিক্ষোভ করে।

 

ইউএনও আরো জানায়, এরপর থানা-পুলিশের কয়েকজন সদস্য নিয়ে কনের বাড়িতে উপস্থিত হই। ভ্রাম্যমাণ আদালত কম বয়সে বিয়ে দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগে কনের বাবাকে ২ হাজার ও বরের পক্ষকে ৮ হাজার টাকা অর্থদ- করা হয়। মেয়ে প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগে বিয়ে দেবেন না, মর্মে মুচলেকা দেন তাঁর পরিবার।

 

এক প্রশ্নের জবাবে ইউএনও বলেন, মানুষ আরও সচেতন হলে বাল্যবিবাহ শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনা সম্ভব। একই সঙ্গে উপস্থিত সকলকে বাল্য বিবাহের কুফল সম্পর্কে অবহিত করার সাথে সাথে বাল্য বিবাহের ঘটনা ঘটলে তাকে অবহিত করার অনুরোধ করেন তিনি।

Sharing is caring!