Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ
নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার খিলপাড়া ইউনিয়নে পুলিশের সাথে কথিত বন্দুক যুদ্ধে ছায়েম ফিরোজ (৪০) এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। পুলিশের দাবী নিহত ফিরোজ একজন মাদক কারবারি, তার বিরুদ্ধে ১২টি মামলা রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।
শনিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে খিলপাড়ার রহিম হাজীর বাড়ীর সামনে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ছায়েম ফিরোজ ঘাটলাবাগ গোবিন্দপুর এলাকার খোরশেদ আলম প্রকাশ মানিক পাটোয়ারী ছেলের। আহত পুলিশ সদস্যরা হচ্ছেন এসআই জসিম উদ্দিন, এএসআই এমরান, কনেস্টবল সোহেল।
পুলিশ জানায়, খিলপাড়া ইউনিয়নের রহিম হাজী বাড়ী এলাকায় একদল মাদক কারবারি মাদক ক্রয়বিক্রয় করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালায় চাটখিল থানা পুলিশ। ঘটনাস্থলে পোঁছা মাত্র পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক কারবারিরা পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছুঁড়ে। এসময় আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুঁড়লে উভয় পক্ষের মধ্যে প্রায় ২০মিনিট ধরে গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। মাদক কারবারিদের গুলিতে গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটে পড়েন ছায়েম ফিরোজ। গোলাগুলিতে আহত হন পুলিশের তিন সদস্য। পরে পুলিশের সাথে প্রতিরোধ গড়তে না ফেরে মাদক কারবারিরা পিছু হটলে পুলিশ আহত ফিরোজকে উদ্ধার করে চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থল থেকে দুটি দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র, ১৫রাউন্ড কার্তুজ, ২রাউন্ড কার্তুজের খোসা ও ৪’শ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত মাদক কারবারি ফিরোজের বিরুদ্ধে মাদক ও অস্ত্র আইনে থানায় ১২টি মামলা রয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মাদক কারবারিদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করবে।

Sharing is caring!