কোম্পানীগঞ্জে ঘুষ নিয়ে ক্লোজড এসআই রুপন নাথ

নিউজ ডেস্ক
নিউজ ডেস্ক
আপডেটঃ : সোমবার, ৬ জুলাই, ২০২০

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ
নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় অবৈধভাবে আটক করা সিএনজি গাড়ী (নোয়াখালী-থ-১১-৯৩০৮) এবং ঘুষ নেয়া ৫হাজার টাকা ফেরত দিয়েছেন অভিযুক্ত এসআই রুপন নাথ। ইতোমধ্যে তাকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে।
সোমবার দুপুরে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মো. আরিফুর রহমান রুপন নাথের ক্লোজডের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
জানা গেছে, গত ৫জুলাই রবিবার সিএনজি অটো রিকশা চালক মিলন নোয়াখালী পুলিশ সুপার বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেন। একইদিন রাত ১০টায় এসআই রুপন নাথের বিরুদ্ধে করা অভিযোগের তদন্তে আসেন নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) কাজী আবদুর রহিম। তদন্তের সময় অভিযোগকারী সিএনজি চালক মিলন তার গাড়ীর মালিক পিন্টু ভৌমিক এবং মিলনের বাবা গ্রাম পুলিশ ছায়েদল হকের জবানবন্ধি রেকর্ড করা হয়। তদন্ত সম্পন্ন হলে তদন্তকারী ওই পুলিশ কর্মকর্তা রাতেই কোম্পানীগঞ্জ থানা থেকে জেলা হেড কোয়ার্টারে চলে যান।
সোমবার দুপুরে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসির নির্দেশে অভিযুক্ত এসআই রুপন নাথ সিএনজি চালক মিলন ও গাড়ীর মালিক পিন্টু ভৌমিকের কাছে আটক সিএনজি ও ঘুষের নেয়া ৫হাজার টাকা ফেরত দেন। আটকৃত এ গাড়ী ও টাকা লেনদেনের সময় বিষয়টি ভিডিও করে উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীরা। যা তাৎক্ষনিক ভাবে ভাইরাল হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে।
কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আরিফুর রহমান জানান, সোমবার বিকেলে সিএনজি অটোরিকশাটি মালিককে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। অভিযুক্ত এসআই রুপন নাথের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের তদন্ত চলছে। তাকে আপাতত ক্লোজড করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার মিলন (৩২) নামে সিএনজি অটোরিকশা চালককে ডেকে নিয়ে থানায় আটক করে মাদক মামলায় ফাঁসিয়ে দেয়ার হুমকি দেয় এসআই রুপন নাথ। রাতে মিলনের বাবা ছায়েদল হককে ডেকে এনে মিলন মাদক ব্যবসায় জড়িত দাবী করে তার কাছে ৫০হাজার টাকা দাবী করে রুপন। দেন দরবার শেষে ১০ হাজার টাকা দিলে ছেড়ে দেয়া হবে বলার পর পিন্টু ভৌমিকের মাধ্যমে ৫হাজার টাকা সংগ্রহ করে ছায়েদল হক এনে দেন এসআই রুপন নাথকে। শুক্রবার রাত ২টার সময় সিএনজি চালক মিলনকে তার বাবা গ্রাম পুলিশ ও সিএনজির মালিক পিন্টু ভৌমিকের কাছে হস্তান্তর করে। এ ঘটনায় সিএনজি চালক মিলন রবিবার সকালে নোয়াখালী পুলিশ সুপার কার্যালয়ে স্ব-শরীরে গিয়ে লিখিত ভাবে অভিযোগ করেন।
এ বিষয়ে রবিবার অভিযুক্ত এসআই রুপন নাথের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে টাকা নেয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, আপনি পারলে বড় বড় করে পত্রিকায় লিখে দেন। আমি কোম্পানীগঞ্জের মানুষকে মেরে মামলায় আসামী করে তারপর কোম্পানীগঞ্জ ছাড়বো। আমি এসআই রুপন নাথ বলছি, ডিআইজি নয়, আমি আইজিপি’কেও পরোয়া করি না। পারলে আপনাদের মন্ত্রীকে (ওবায়দুল কাদের) দিয়ে আমাকে বদলী করিয়ে দেন।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯