Sharing is caring!

এনকে বার্তা ডেস্ক:

ভারতে ক্রমেই বাড়ছে করোনার প্রাদুর্ভাব। করোন ঠেকাতে ভারত জুড়ে চলছে তৃতীয় পর্যায়ের লকডাউন। তৃতীয় পর্যায়ে রেড জোন নিয়ে যথেষ্ট কড়াকড়ি রয়েছে। অথচ তার মধ্যেই দেশটিতে ক্রমাগত বেড়ে চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা।

দেশটিতে মঙ্গলবার গত ২৪ ঘন্টায় সবথেকে বেশি মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। গত একদিনে ভারতে ১৯৫ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। পাশাপাশি গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৪ হাজার মানুষ, অর্থাৎ ৩ হাজার ৯০০ জন। একদিনে এত বেশি আক্রান্তের ঘটনা ভয়াবহ পরিণামের ইঙ্গিত দিচ্ছে। কেননা এর আগে সেখানে একদিনে এত মানুষ আক্রান্ত হননি।

ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫৬৮ জন। মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪৬ হাজার ৪৩৩ জন।

তৃতীয় পর্যায়ের লকডাউনের মধ্যেও ক্রমাগত বেড়ে চলা করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ভারতে আতঙ্কজনক পরিস্থিতি তৈরি করেছে।

এদিকে ভারতে করোনা আক্রান্ত থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১২ হাজার ৭২৭ জন। ভারতে এই মুহূর্তে ১৫০০ জনের বেশি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেও দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ভারতে সুস্থতার হার ২৭.৫২ শতাংশ।

ভারতে তৃতীয় দফার লকডাউনে অধিকাংশ বিধিনিষেধ কিছুটা হাল্কা করা হয়েছে। গত মার্চ মাস থেকে শুরু হওয়া লকডাউনের তৃতীয় পর্যায়ের দ্বিতীয় দিনে সবথেকে বেশি সংক্রামণ এবং মৃত্যুর ঘটনা ঘটলো। এর আগে সোমবার ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছিলো ৭২ জনের, আক্রান্ত হয়েছিলেন ২৫৫৩ জন।

ভারতের মধ্যে সবথেকে বেশি করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে মহারাষ্ট্র রাজ্যে। তারপরেই রয়েছে গুজরাট এবং দিল্লি। তবে তৃতীয় দফার লকডাউনের মধ্যে করোনার সংক্রমণ রেকর্ড হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় চিন্তা বাড়ছে।

এদিকে মঙ্গলবার সর্বশেষ খবরে জানা যায়, ভারতে করোনা হানা দিয়েছে কেন্দ্রীয় আইন মন্ত্রণালয়ে। আইন মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা করোনা আক্রান্ত বলে জানা গিয়েছে। যার জেরে মঙ্গলবার সকালেই সিল করে দেওয়া হয়েছে দিল্লির আইন মন্ত্রণালয় শাস্ত্রী ভবনের একাংশ।

Sharing is caring!