Sharing is caring!

প্রতিনিধি, হিলি (দিনাজপুর):

 

নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের পর ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হওয়ায় দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের স্থানীয় বাজরে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। কেজি প্রতি পেঁয়াজের দাম কমেছে ৫ থেকে ১৫ টাকা পর্যন্ত।

অভ্যন্তরীণ সংকট দেখিয়ে ভারত সরকার গত বছরের ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে সাড়ে ৩ মাস বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। নিষেধাজ্ঞার কারণে বাংলাদেশে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ থাকে। ভারতের কৃষি মন্ত্রণালয় পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়। গত ২৮ ডিসেম্বর এ সংক্রান্ত একটি নিদের্শনা জারি করে ভারত সরকার। নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের পর শনিবার (২ জানুয়ারি) থেকে এই বন্দর দিয়ে শুরু হয় পেঁয়াজ আমদানি।

এদিকে ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানির প্রভাব পড়েছে স্থানীয় বাজারে। গত শুক্রবার প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ ৪০ থেকে ৪৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ রোববার দেশি পেঁয়াজ প্রতিকেজি (প্রকারভেদে) ৩০ থেকে ৩৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আর ভারত থেকে আমদানিকরা পেঁয়াজ প্রতিকেজি (প্রকারভেদে) বিক্রি হচ্ছে ২৭ থেকে ৩০ টাকা দরে।

হিলি বন্দরের পেঁয়াজ ব্যবসায়ী শাহীনুর ইসলাম বলেন, আমদানি পুরোদমে শুরু হলে এক সপ্তাহের মধ্যে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম আরও কমতে পারে।

হিলি স্থলবন্দরের ব্যবসায়ী মাহফুজার রহমান বাবু বলেন, পেঁয়াজ রফতানিতে ভারত সরকারের নির্দিষ্ট কোন মূল্য নির্ধারণ না থাকলেও প্রতি মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হচ্ছে ২৫০ থেকে ২৮০ মার্কিন ডলারে। আর এসব পেঁয়াজ আমদানি হচ্ছে ভারতের মধ্য প্রদেশের ইন্দোর থেকে।

Sharing is caring!