Sharing is caring!

নরসিংদীতে পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রী ও শিশুপুত্রকে গলা কেটে হত্যা করেছে পাষণ্ড স্বামী। এ ঘটনায় ঘাতক স্বামী ফখরুল ইসলামকে (২৬) আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী।

রবিবার গভীর রাতে নরসিংদী সদর উপজেলার চিনিশপুর ইউনিয়নের ঘোড়াদিয়া এলাকায় এ নির্মম হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সাহেব আলী পাঠান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হলো স্ত্রী রেশমি আক্তার (২৬) ও তাদের ১৩ মাস বয়সী শিশু পুত্র সালমান সাফায়ার। নিহতদের লাশ ময়না তদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। আটক স্বামী পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

পুলিশ ও নিহত রেশমি আক্তারের স্বজনরা জানান, বিগত দুই বছর আগে পারিবারিকভাবে নরসিংদী শহরের দত্তপাড়া এলাকার রেশমি আক্তারের সাথে নরসিংদী সদর উপজেলার চিনিশপুর ইউনিয়নের ঘোড়াদিয়া এলাকার সাইফুল্লার ছেলে ফখরুল ইসলামের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামীকে নিয়ে শ্বশুর-শাশুড়ির সাথে ঝগড়া বিবাদ লেগে থাকত স্ত্রী রেশমি আক্তারের।

বিয়ের পর চাকরি না থাকায় ছেলে মাদকাসক্ত হয়ে পড়ে এমন অভিযোগে ফখরুলকে রিহ্যাবে দেয় তার বাবা-মা। পরে স্ত্রীর আবদারে তাকে রিহ্যাব থেকে বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। এ নিয়ে কলহে জড়িয়ে পড়ে পরিবারটি। এর জেরে রবিবার দিবাগত গভীর রাতে এ নির্মম হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

Sharing is caring!