Sharing is caring!

নির্বাচন কমিশন গঠনে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপে ৩টি প্রস্তাব উত্থাপন করেছে জাতীয় পার্টি। এসব প্রস্তাবে ইসি গঠনে আইন প্রণয়নের দাবি জানানো হয়। এছাড়া সার্স কমিটির জন্য যোগ্য ও নিরপেক্ষ চারজনের নাম রাষ্ট্রপতির কাছে প্রস্তাব করেছে দলটি। তবে এই চারজনের নাম গণমাধ্যমকে জানানো হয়নি। এছাড়া রাষ্ট্রপতি যদি সার্চ কমিটির মাধ্যমে ইসি গঠন না করে নিজের ক্ষমতাবলে গঠন করেন সেক্ষেত্রে ইসি নিয়োগে একজনের নাম প্রস্তার করা হয়েছে। সোমবার (২০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ইসি পুনর্গঠন নিয়ে আলোচনায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সংলাপের পর দলটির নেতারা গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানান।

তিন প্রস্তাবে যা আছে: প্রথম প্রস্তাবে নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনে আইন প্রণয়নের কথা বলেছে জাতীয় পার্টি। দলটির নেতারা জানান, এই প্রস্তাবে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আইন প্রণয়নের জন্য যথেষ্ট সময় হাতে নেই। এর প্রেক্ষিতে জাপা বলেছে, সংসদে এ বিষয়ে বিল উত্থাপন করা হলে তারা সর্বাত্মক সহযোগিতা করবেন। আর সরকার যদি প্রস্তুত না থাকে তবে জাতীয় পার্টি সংসদে এ বিল উত্থাপনে প্রস্তুত।

দলের নেতারা বলেন, রাষ্ট্রপতি অধ্যাদেশের মাধ্যমে বিলটি জারি করুক। পরবর্তী সংসদ অধিবেশনে তা বিল আকারে পাস করার জন্য জাপা সহযোগিতা করবে।

নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে মতামত জানাতে প্রথম দল হিসেবে বঙ্গভবনে যায় সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি। সংলাপে অংশ নিতে বিকেল পৌনে ৪টার দিকে বঙ্গভবনে প্রবেশ করে জিএম কাদেরের নেতৃত্বে আট সদস্যের প্রতিনিধি দল।

প্রতিনিধি দলের অন্য সদস্যরা হলেন- সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, কাজী ফিরোজ রশিদ, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু, কো-চেয়ারম্যান সালমা ইসলাম এবং সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা।

Sharing is caring!