Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ
করোনার অস্থায়ী হাসপাতাল নোয়াখালীর শহীদ ভুলু স্টেডিয়াম থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রদীপ দাস (৫৮) নামের এক করোনায় আক্রান্ত রোগীকে ঢাকায় নেওয়ার পথে মারা গেছেন। আর একদিনপর তার শরীর থেকে দ্বিতীয় নমুনা সংগ্রহ করার কথা ছিল। এনিয়ে জেলায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে এক নারীসহ ২৬জনের।
শুক্রবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, নোয়াখালী কোভিড-১৯ হাসপাতালের ইনচার্জ ডা. নিরুপম দাস।
তিনি বলেন, নোয়াখালী পৌর শহরের সুলতান কলোনীর বাসিন্দা প্রদীপ দাসের করোনা শনাক্ত হয় গত ২৭ মে। কয়েকদিন হোম আইসোলেশনে থাকার পর ৩১মে তাকে শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত কয়েকদিনের চিকিৎসায় তার শারীরিক অবস্থার অনেক উন্নতি হয়। শুক্রবার সকালে কর্তব্যরত চিকিৎসক পর্যবেক্ষণকালে দেখেন তার শ্বাস কষ্ট বেড়ে গেছে। ঠিক ওইসময় তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ও অক্সিজেন সেবা দেওয়া হয়। এরপর থেকে তার অবস্থা উন্নতি হলে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা স্থানান্তর করার ব্যবস্থা করা হয়। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালসহ কয়েকটি হাসপাতালের ঠিকানা দেওয়া হয় তাদের। ঢাকা নেওয়ার পথে দুপুর দেড়টার দিকে কুমিল্লায় তার মৃত্যু হয়।
জেলায় করোনায় যাদের মৃত্যু হয়েছেঃ জেলায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে ২৬জনের। তারা হচ্ছেন, সোনাইমুড়ীতে মোরশেদ আলম (৪৫) নামে এক ইতালি প্রবাসী, সেনবাগে এক রাজমেস্ত্রী মো. আক্কাস (৪৮), বেগমগঞ্জে তারেক হোসেন (৩০) ও আমিনুল ইসলাম মিন্টু (৪৭) নামের দুই ব্যবসায়ী, সোনাইমুড়ীতে ফখরুল ইসলাম বাচ্চু (৫৯) নামের এক কৃষক, বেগমগঞ্জের কুতুবপুরে শহিদুর রহমান (৬৬), চৌমুহনী পৌরসভা করিমপুরের বেলাল উদ্দিন (৫৭), চৌমুহনী পৌরসভার পশ্চিম গণিপুর হাজী আবুল খায়ের পাটোয়ারী (৭৪), নরোত্তমপুরে জতন লাল সাহা (৬৫), সুবর্ণচর উপজেলার চরবাটার মাঈন উদ্দিন মানিক (৬৫), নোয়াখালী পৌরসভা ৪নং ওয়ার্ড জয়কৃষ্ণপুরের আব্দুর রাজ্জাক ফারুক (৫৫), সেনবাগ উপজেলার ছাতারপাইয়া ইউনিয়নে আব্দুল মান্নান মনু (৬১), বেগমগঞ্জের একলাশপুরের সাখায়েত উল্যাহ (৮০), সেনবাগের কাবিলপুর ইউনিয়নের মহিদীপুর গ্রামের আহসান উল্যাহ (৫৩), কাবিলপুর ইউনিয়নের উত্তর সাহপুর মসজিদের মুয়াজ্জেন মোজাম্মেল হোসেন (৪৪), চৌমুহনী পৌরসভার কাজী মো. সোলায়মান (৬৪), বেগমগঞ্জ একলাশপুরের নূরুল হক (৬২), দূর্গাপুরের নবীর হোসেন (৬৫), শরীফপুর ইউনিয়নের মধ্য খানপুর গ্রামের মো হানিফ (৬০), বেগমগঞ্জ ইউনিয়নের নূর মোহাম্মদ (৫২), চৌমুহনী পৌরসভার কলেজ রোড এলাকার বিপ্লব রায় (৬৫) ও আলাইয়পুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মাহমুদুল হাসান (৩০) একই এলাকার আবুল কালাম আজাদ (৬৫), সদর উপজেলার নোয়াখালী ইউনিয়নের ঠক্কর গ্রামের আশরাফুল ইসলাম আবু (৫৭), চাটখিল পৌরসভার ছয়ানী টগবা এলাকার বুলবুলের নাহার (৫৫) ও জেলা শহরের সুলতান কলোনীর বাসিন্দা প্রদীপ দাস (৫৮)।

Sharing is caring!