প্রতিবেদক:

মহামারি করোনাভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৭ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এতে করোনায় মোট মারা গেলেন এক হাজার ৪৯ জন। মৃতদের মধ্যে ৩০ জন পুরুষ ও ৭ জন নারী। তাদের মধ্যে ঢাকায় ২০ জন, চট্টগ্রামে ৭, সিলেটে ৩, রাজশাহীতে ৪, বরিশালে ২ এবং রংপুর বিভাগে ১ জন মারা গেছেন। একই সময়ে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন আরও তিন হাজার ১৮৭ জন। ফলে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৭৮ হাজার ৫২ জনে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৬ হাজার ১১৪টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১৫ হাজার ৭৭২টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো চার লাখ ৫৭ হাজার ৩৩২টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে আরও তিন হাজার ১৮৭ জনের মধ্যে। ফলে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৭৮ হাজার ৫২ জনে। আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছেন আরও ৩৭ জন। আগের দিনও সমানসংখ্যক রোগীর মৃত্যু হয়েছিল। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হলো এক হাজার ৪৯ জনের। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৮৪৮ জন। ফলে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেন মোট ১৬ হাজার ৭৪৮ জন।

এক নজরে বাংলাদেশের করোনাচিত্র:

মোট আক্রান্ত: ৭৮ হাজার ৫২ জন।
মারা গেছেন: ১ হাজার ৪৯ জন।
মোট সুস্থ: ১৬ হাজার ৭৪৭ জন।
মোট নমুনা পরীক্ষা: ৪ লাখ ৫৭ হাজার ৩৩২টি

দেশে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত প্রথম রোগী শনাক্ত হয় ৮ মার্চ। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ১৮ মার্চ। করোনাভাইরাস সংক্রান্ত যেকোনো তথ্যের জন্য সরকার ইতোমধ্যেই একটি বিশেষ ওয়েবসাইট (www.corona.gov.bd) চালু করেছে।

এদিকে, করোনার পরিসংখ্যান নিয়ে কাজ করা ওয়ার্ল্ডোমিটারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় বেলা ৩টা পর্যন্ত বৈশ্বিক এ মহামারিতে সারা পৃথিবীতে ৭৪ লাখ ৭১ হাজার ১৯৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে প্রাণ গেছে ৪ লাখ ১৯ হাজার ২৬৫ জনের।