Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ 
নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার কাবিলপুর ইউনিয়নে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে সামিয়া আক্তার (১৩) নামের এক মাদ্রাসা ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। লকডাউন করা হয়েছে তার নানার বাড়ী। বাড়ীটিতে ১৫টি পরিবারে সদস্য রয়েছে ৬৬জন।
রবিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বাড়ীটি লকডাউন ঘোষনা করেন, সেনবাগ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম মজুমদার। মৃত সামিয়া আক্তার বেগমগঞ্জ উপজেলার লাউতলী এলাকার ওমান প্রবাসী শহিদ উল্যার মেয়ে।
সেনবাগ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মতিউর রহমান বলেন, মাদ্রাসা ছাত্রী সামিয়া গতকিছু দিন আগে তার নানার বাড়ী সেনবাগ উপজেলার কাবিলপুর ইউনিয়নের মইজদীপুর গ্রামের মেহের আলী ব্যাপারী বাড়ীতে আসে। গত কয়েকদিন ধরে সে জ¦র ও শ্বাস কষ্টে ভুগছিলেন। রবিবার সকাল ৭টার দিকে ওই বাড়ীতে তার মৃত্যু হয়। করোনা ভাইরাসের উপসর্গ থাকায় তার শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তার সংস্পর্শে আসা তার মা ও নানীরও নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। নমুনাগুলো পরীক্ষার জন্য বিআইটিআইডি চট্টগ্রামে পাঠানো হবে।
সেনবাগ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম মজুমদার বলেন, লকডাউন ঘোষনা করে বাড়ীটির সামনে লাল পতাকা টাঙিয়ে দেওয়া হয়েছে। নমুনা রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত বাড়ীটির ১৫টি পরিবারে ৬৬জন সদস্য হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবে।

Sharing is caring!