Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধি::

নোয়াখালীর ছয় উপজেলায় মোবাইল কোর্টে ২৩টি মামলায় ৫৩,৫৫০/-টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অতিরিক্ত মূল্য বৃদ্ধির বিরুদ্ধে বাজার মনিটরিং ও সামাজিক দূরত্ব বাস্তবায়নে মঙ্গলবার (০৫মে) নোয়াখালী জেলা সদর, বেগমগঞ্জ, সেনবাগ, কবিরহাট, কোম্পানিগঞ্জ ও হাতিয়া উপজেলায় দন্ডবিধি ১৮৬০, সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নিমূল) আইন ২০১৮ ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ মোতাবেক ২৩ টি মামলায় সর্বমোট ৫৩,৫৫০/-টাকা জরিমানা করেছেন মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকারী বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটগণ।

সদর উপজেলার ওয়ালটন শোরুম ভুইয়া সেনেটারী, কাব্য সেলুন, মামনি কসমেটিকস, জননী কসমেটিকস, উত্তম ম্যাটট্রেস ও স্বপ্ন ফটোকপি কে ৭টি মামলায় ৬,৫৫০/- টাকা জরিমানা করেন বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান রনি।

কবিরহাট উপজেলার কালামুন্সি বাজারের এমরান স্টোর, মমিন স্টোর, হক স্টোর ও আলামিন স্টোর কে ৪টি মামলায় ১০,০০০/- টাকা জরিমানা করেছেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট এম সাইফুল্লাহ।

বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী বাজারের বাবুল, মাহমুদ, দেলোয়ার, হাসান, আবুল কাশেম ও নজরুল ইসলামকে ৬টি মামলায় ২১,০০০টাকা জরিমানা করেছেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রে ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সরওয়ার কামাল।

সেনবাগ উপজেলার ছাতারপাইয়া ও কানকির হাট এলাকায় ৪টি মামলায় মাহিদ হার্ডওয়ার, স্টার স্পোর্স, ইসলামিয়া লাইব্রেরী ও জিসান স্টোরকে ৩,০০০/- টাকা জরিমানা করেন বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার(ভূমি) ক্ষেমালিকা চাকমা।

সোনাইমুড়ী উপজেলায় পরিবেশ সংরক্ষণ আইন ১৯৯৫ অনুযায়ী একটি মামলায় ২০,০০০টাকা জরিমানা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি)।

হাতিয়া উপজেলার নলছিরা ঘাটের আবুল বাশারকে সংক্রমণ রোগ(প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মল) আইন ২০১৮ লঙ্গন করায় ১টি মামলায় ২০,০০টাকা জরিমানা করেছেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

বিজ্ঞ অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট নোয়াখালী জনাব তারিকুল আলম বলেন, উপজেলা ভিত্তিক জনস্বার্থ সংশ্লিষ্ট অগ্রাধিকার বিষয়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার জন্য বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটদের নির্দেশনা প্রদান করতে হবে।

বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, নোয়াখালী তন্ময় দাস জানান যে, অত্র জেলার জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটগণকে দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখতে ও সামাজিক দূরত্ব বাস্তবায়নে অধিক সময় নিয়ে জনস্বার্থে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার নির্দেশেনা দেওয়া হয়েছে।

Sharing is caring!