নোয়াখালী প্রতিনিধি:

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে উদ্দেশ্য মূলক ভাবে অপপ্রচারের শিকার হয়ে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে এক অসহায় প্রধান শিক্ষক থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

ভুক্তভোগী বাবু কৃষ্ণপদ দাস উপজেলার চর এলাহী ইউনিয়নের ‘গাংচিল কবি নজরুল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) সকালে কোম্পানীগঞ্জ থানায় তিনজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরও একজনকে অভিযুক্ত করে তিনি এ সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। অভিযুক্তরা হলো উপজেলার চএলাহী ইউনিয়নের মো. রিয়াজ উদ্দিন, মো. ইলিয়াস ভুঁঞা ও মো. লিটন।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী প্রধান শিক্ষক কৃষ্ণপদ দাস বলেন, আমি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চর এলাহী ইউনিয়নের ‘গাংচিল কবি নজরুল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। দীর্ঘ চার বছর যাবৎ সুনামের সাথে অত্র প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করে আসছি। ইতিপূর্বে আমি সুনামের সহিত ‘থানার হাট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে’ বিএসসি (সহকারী শিক্ষক) হিসেবে চৌদ্দ বছর কর্মরত ছিলাম। দুইটি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত থাকা কালিন সময়ে আমার শিক্ষকতা জীবনে নুন্যতম কোন রকম অভিযোগ কেউ আনতে পারেনি।

গত কয়েক দিন যাবৎ একটি কুচক্রি মহল আমার প্রতিষ্ঠান এবং আমার সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমার নামে বিভিন্ন ফেসবুক আইডিতে কুৎসা রটনা করে আসছে। এহেন পরিস্থিতিতে আমি বিব্রতবোধ করছি এবং এর তীব্র প্রতিবাদ জ্ঞাপন করছি। আমি এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান, উপজেলা শিক্ষা অফিসার এবং কোম্পানীগঞ্জ থানায় অভিযোগ করেছি। আমি আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনে সংশ্লিষ্ঠ কর্মকর্তাদের সু-দৃষ্টি কামনা করছি।

ঘটনার বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আমির হোসেন বিএসসি তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তিনি আরো জানান, শিক্ষক সমাজের সম্মান বিনষ্টকর এমন কুৎসা রটনা কাম্য নয়। তিনি অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে বিচার দাবী করেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি জানান, এবিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। পরবর্তীতে বিষয়টি খতিয়ে দেখে আইনানুগ প্রদক্ষেপ নেওয়া হবে।