Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিবেদক:

 

বাংলাদেশ আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে ফেসবুকে (নোবিপ্রবি) কর্মকর্তা জিয়াউল হক সম্রাটের কটূক্তির প্রতিবাদে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

রোববার (২০ জুন) সকাল ১০টায় উপজেলার বসুরহাট বাজারের বঙ্গবন্ধু চত্তরে উপজেলা ছাত্রলীগের আয়োজনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

 

মানববন্ধনে বক্তরা, সেতুন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে কটূক্তিকারী সম্রাটের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন। অপরদিকে, মানববন্ধনে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা নোবিপ্রবির কর্মকর্তা সম্রাটের পাশাপাশি চরফকিরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আশ্রাফ হোসেন রবেন্সের বিরুদ্ধে ফেসবুকে তার অ্যাকাউন্ট থেকে ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগ এনে দ্রুত তার গ্রেফতার দাবি করেছেন।

 

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, কাদের মির্জা ঘোষিত উপজেলা আ.লীগের সভাপতি ইস্কান্দার হায়দার চৌধুরী বাবুল, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইউনুছ, পৌরসভা আ.লীগের সভাপতি জামাল উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সজল, সাধারণ সম্পাদক আরিফুর রহমান আরিফ প্রমূখ।

 

এদিকে, রোববার সকাল ৯টার দিকে চরফকিরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও বাদল অনুসারী আশ্রাফ হোসেন রবেন্স গণমাধ্যম কর্মীদের জানিয়েছেন, সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আমাদের গর্ব, প্রাণ প্রিয় নেতা। কিন্তু দুঃখের সাথে জানাচ্ছি, কোম্পানীগঞ্জে বিবদমান রাজনৈতক দ্বন্দ্বের জের ধরে সে প্রাণ প্রিয় নেতাকে নিয়ে আমার নাম ও ছবি দিয়ে পেইক ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে মির্জা কাদেরের অনুসারীরা ফেসবুকে মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে। এটি তাদের ঘোলা পানিতে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার ধারাবাহিক অপচেষ্টার অপপ্রয়াস মাত্র। আমি ঘৃণাভরে এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি। একই সাথে বলিছি, সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আমাদের আস্থার ঠিকানা। আপনি শুধু আমাদের নোয়াখালীর গর্ব নন, সারা বাংলাদেশের গর্ব, আপনি আওয়ামী রাজনীতির অহংকার, আপনাকে নিয়ে আমরা কোম্পানীগঞ্জ বাসী গর্ব বোধ করে।

উল্লেখ্য, শনিবার (১৯ জুন) দুপুর আড়াইটার দিকে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কটূক্তিকারী নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) পরিকল্পনা উন্নয়ন ও ওয়ার্কস (ডিপিডি) ডিপার্টমেন্টের সহকারী পরিচালক জিয়াউর জিয়াউর রহমান সম্রাটকে (৩৫) কবিরহাট উপজেলার ঘোষবাগ ইউনিয়নের শাহাজিরহাট সংলগ্ন এলাকা থেকে আটক করে বিকেল ৫টার দিকে তাকে কারাগারে প্রেরণ করে পুলিশ।

 

আটককৃত, জিয়াউর রহমান সম্রাট (৩৫) নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) পরিকল্পনা উন্নয়ন ও ওয়ার্কস (ডিপিডি) ডিপার্টমেন্টের সহকারী পরিচালক। সে কবিরহাট উপজেলার ঘোষবাগ ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তমপুর লামছি গ্রামের ইউছুফ ভূঁইয়ার ছেলে।

 

এর আগে, গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বাংলাদেশ আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তি করার অভিযোগে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান সম্রাটের বিরুদ্ধে কবিরহাট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন কবিরহাট উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো.নজরুল ইসলাম (৪৮)।

 

অভিযোগটিতে বিবাদী করা হয়েছে, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) পরিকল্পনা উন্নয়ন ও ওয়ার্কস ডিপার্টমেন্টের সহকারী পরিচালক জিয়াউর রহমান সম্রাটকে (৩৫)। সে কবিরহাট উপজেলার ঘোষবাগ ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তমপুর লামছি গ্রামের ইউছুফ ভূঁইয়ার ছেলে।

 

লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, গত (১৭ জুন) রাত ১২টা ৮মিনিটের দিকে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) পরিকল্পনা উন্নয়ন ও ওয়ার্কস ডিপার্টমেন্টের সহকারী পরিচালক জিয়াউর রহমান সম্রাট তার নিজের ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট (সম্রাট এসএফ) থেকে ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ আজেবাজে স্ট্যাটাস দিয়ে ওবায়দুল কাদেরের দীর্ঘ দিনের অর্জিত মান সম্মান ক্ষুণ্ন করে। বিবাদী নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী পরিচালক পদে কর্মরত থাকা অবস্থায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রীর বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ স্ট্যাটাস দিয়ে রাষ্ট্রীয় শিষ্টাচার বহির্ভূত আচরণ করেন। তার এমন আচরণে দলের ও প্রিয় নেতার সম্মান নষ্ট করায় বিবাদীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

 

এ বিষয়ে জানতে জিয়াউর রহমান সম্রাট গত বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ১৬ মিনিটের দিকে সম্রাট তার ফেইসবুক অ্যাকাউন্টে এক স্ট্যাটাসে লিখেন, প্রিয় নোয়াখালীবাসী, গতকাল রাতে আমার ফেইসবুক আইডি হ্যাক করে মাননীয় মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের বিরুদ্ধে আপত্তিকর একটা পোস্ট দেয়া হয়। পরে আইডি পুনরুদ্ধার করে আমি পোস্টটা ডিলিট করি। এমন অনাকাঙ্খিত বিষয়ে আমি বিব্রতবোধ করছি,সাথে দুঃখ ও প্রকাশ করছি। আমি মুজিব আর্দশের সৈনিক, নিজের থেকে পোস্ট দিলে আমি ডিলিট করতাম না। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন। জয় বাংলা ,জয় বঙ্গবন্ধু।

Sharing is caring!