Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

 

নোয়াখালী সোনাইমুড়ীতে দৈনিক যুগযুগান্তর পত্রিকার স্থানীয় প্রতিনিধি হোছাইন মাহমুদের পেশাগত দায়িত্ব পালনে বাঁধা দেওয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে সোনাইমুড়ীতে কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ।

 

শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় সোনাইমুড়ী প্রেসক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। সোনাইমুড়ী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক বেলাল ভূঁইয়ার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, প্রেসক্লাব সভাপতি খোরশেদ আলম, বেগমগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মিঠু, মুক্তির মিছিল পত্রিকার সম্পাদক ফারুক আল-ফয়সাল, দৈনিক দিনকাল প্রতিনিধি খোরশেদ আলম শিকদার।

 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, এশিয়ান টিভি জেলা প্রতিনিধি মাহবুব আলম, দৈনিক মানবজমিন প্রতিনিধি আমিনুল ইসলাম মানিক, সোনাইমুড়ী প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার বারী পিন্টু, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন, সাহিত্য ও ক্রীড়া সম্পাদক গোলজার হানিফ, দৈনিক আমার বার্তা প্রতিনিধি মোরশেদ আলমসহ সোনাইমুড়ীতে কর্মরত বিভিন্ন ইলেকট্রনিক, প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।

 

উল্লেখ্য-থানায় অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,গত ২৩ সেপ্টেম্বর সোনাইমুড়ী বাজারে চাঁদা আদায়ের সময় ফল বিক্রেতার সাথে জয়নাল, রাসেলসহ কয়েকজন বাকবিতন্ডায় লিপ্ত হয়ে ফল বিক্রেতার ঝুড়ি রাস্তায় পেলে দিলে দৈনিক যুগযুগান্তর পত্রিকার প্রতিনিধি হোছাইন মাহমুদ ঘটনাস্থলে ভিডিও চিত্র ধারণ করতে থাকলে জয়নাল, রাসেলসহ বেশ কয়েকজন তার উপর চড়াও হয়ে তার মোবাইল ছিনিয়ে নেয় এবং তাকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দের পাশাপাশি কিল, গুষি দেয়। পরে সোনাইমুড়ী থানায় সাংবাদিক হোছাইন মাহমুদ বাদী হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হলেও প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ার এই মানববন্ধন করেন সাংবাদিকরা।

 

ঘটনার ৩ দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত আসামীদের গ্রেপ্তার ও মোবাইল উদ্ধার করে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। অবিলম্বে অপরাধীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানান। অন্যথায় আরও কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে বলে হুশিয়ার করেন সাংবাদিক নেতারা।

Sharing is caring!