Sharing is caring!

ছবি: ইন্টারনেট

আগামী হজ সংক্রান্ত কার্যক্রম সুন্দরভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট সব মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দপ্তর ও সংস্থাকে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নিজ নিজ কার্যক্রম সম্পন্ন করতে নির্দেশ দিয়েছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান। এসময় তিনি বলেন, আশা করা যায়, সার্বিক পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলে চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী বছর ৮ জুলাই পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে এবং পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলে বাংলাদেশিরাও হজে যেতে পারবেন। গতকাল রোববার (২১ নভেম্বর) ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে পবিত্র হজ সুন্দরভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে পূর্ব প্রস্তুতি গ্রহণের জন্য হজ কার্যক্রমে সম্পৃক্ত সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের সমন্বয়ে অনুষ্ঠিত আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে প্রতিমন্ত্রী এ নির্দেশনা দেন।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, করোনা ভাইরাস মহামারি পরিস্থিতির কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে সৌদি আরবের বাইরের দেশ থেকে হজ যাত্রীরা সৌদি আরব গমণ করতে পারেননি। বর্তমানে করোনা পরিস্থিতি উন্নতি হওয়ায় পবিত্র ওমারহ কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে বিপুল সংখ্যক ওমরাহ যাত্রী সৌদি সরকার প্রদত্ত স্বাস্থ্যবিধি ও অন্যান্য শর্তাবলী পালন সাপেক্ষে ওমরাহ পালন করছেন। তিনি বলেন, সৌদি-বাংলাদেশ হজ চুক্তির পর বিস্তারিত বলা সম্ভব হবে। তবে আগামী হজ সুন্দরভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে হজের অনেক কার্যক্রমের প্রস্তুতি এখন থেকেই শুরু করতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে জানান, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর অনুরোধে সৌদি সরকার বাংলাদেশ থেকে সিনোভ্যাক/সিনোফার্মা টিকা গ্রহণকারী ওমরাহ যাত্রীরা বুস্টারডোজ ছাড়াই ওমরাহ পালন করতে পারবেন।

Sharing is caring!