Sharing is caring!

প্রতিবেদকঃ

করোনার প্রকোপ আর ঘুর্নিঝড় আমপানের আঘাতে বিপর্যস্ত দেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের শিক্ষকবৃন্দ নোবিপ্রবির অসচ্ছল শতাধিক শিক্ষার্থীর মাঝে আর্থিক উপহার তুলে দিয়েছে। মুঠোফোনে মাধ্যমে তাদের এই উদ্যোগের কথা জানতে পেরে নোয়াখালী-৪ আসনের সম্মানিত সংসদ সদস্য জনাব একরামুল করিম চৌধুরী এমপি এর প্রশংসা করেন। তিনি এসময় সংগঠনের সকল শিক্ষককে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন- দেশের এই ক্রান্তিকালে স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ মানবিকতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। ভবিষ্যতে তিনি এই সংগঠনটির সকল শুভ উদ্যোগকে সমর্থন জানিয়ে পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

এছাড়া মুঠোফোনে যুক্ত হয়ে এই উদ্যোগের প্রশংসা ও পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: দিদার-উল-আলম বলেন-জাতির পিতার আদর্শে উজ্জীবিত স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ বরাবরই মানবতার পক্ষে কাজ করে চলেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ ড. ফারুক উদ্দিনও মুঠোফোনে সংগঠনটির কার্যক্রমের প্রশংসা করে বলেন- সংগঠন হিসেবে স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ সদা-সর্বদার জন্য জাতির পিতার চেতনা যে লালন করে এটা তারই বহিঃপ্রকাশ।

উপহার প্রদান অনুষ্ঠানে স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ সভাপতি ড. মো. মফিজুল ইসলাম বলেন- এর পূর্বে ব্যক্তিগত জায়গা থেকে আমরা অনেকেই নিজ নিজ এলাকার অসচ্ছল মানুষ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছিলাম।এই দূর্যোগকালে নোবিপ্রবি স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ দেশরত্ন শেখ হাসিনার মন্ত্রে দীক্ষিত হয়ে সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে ক্ষতিগ্রস্থ শিক্ষার্থীদের মাঝে এই উপহার তুলে দিচ্ছে ।

তিনি আরো বলেন- নোবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতি এবং ‘করোনা মোকাবেলায় নোবিপ্রবিয়ানের পাশে নোবিপ্রবিয়ান’ এর সদস্যবৃন্দ শিক্ষকদের হয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে এই উপহার পৌছে দিচ্ছে। তিনি তাদেরও ধন্যবাদ জানান।

স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় টেলিকনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন ডঃ আবদুল্লাহ –আল-মামুন, সুজিত পাল সহ সংগঠনের সিনিয়র সদস্যবৃন্দ, নোবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতির সভাপতি আব্দুর রহিম, সাধারন সম্পাদক মিজানুর রহমান সবুজ, কোষাধ্যক্ষ মাইনুদ্দিন পাঠনসহ অন্যান্যরা।

Sharing is caring!