Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিবেদক:

 

নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলার দক্ষিণ আলীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভাঙচুরের ঘটনায় ফয়সাল আহমেদ (২৭) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। এসময় তার কাছ থেকে একটি কিরিচ উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে তার বিরুদ্ধে কবিরহাট থানার এস আই শ্রীকান্ত চন্দ্র দাস বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। পরে তাকে বিচারিক আদালতে মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। আটককৃত ফয়সাল আহমেদ দক্ষিণ আলীপুর গ্রামের আব্দুর রব চৌধুরীর ছেলে। সে দক্ষিণ আলীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পিয়ন কাম নৈশপ্রহরী ছিলেন।

 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফয়সাল বিদ্যালয়ে চাকরি করার পাশাপাশি এলাকায় বিভিন্ন অপরাধমুলক কাজের সাথে জড়িত ছিল। সে বিভিন্ন সময় ধারালো অস্ত্র নিয়ে মানুষকে ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা আদায় করতো। বিদ্যালয়ের আশপাশের ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে সে চাঁদা নিতো বলেও অভিযোগ রয়েছে। সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে বিদ্যালয়ে ভাঙচুরের শব্দ পেয়ে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে যায়। এসময় ফয়সাল একটি কিরিচ নিয়ে তাদের ওপর হামলার চেষ্টা করে। পরে লোকজন একত্রিত হয়ে তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

 

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মতিন জানান, রাতেই ঘটনাস্থল থেকে পুলিশের এক কর্মকর্তা বিষয়টি তাঁকে মোবাইলে জানিয়েছিলেন। মঙ্গলবার সকালে বিদ্যালয়ে গিয়ে তিনি তার কক্ষসহ বিভিন্ন কক্ষের চেয়ার, টেবিল, শিক্ষকদের ছবি সম্বলিত বোর্ড ভাঙচুর অবস্থায় দেখতে পান। গত আড়াই বছর আগে ফয়সাল এ বিদ্যালয়ে পিয়ন কাম নৈশপ্রহরী হিসেব নিয়োগ পেয়েছিলেন বলে জানান তিনি।

কবিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) টমাস বড়ুয়া জানান, দেশিয় অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় তার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

Sharing is caring!