Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

 

ভোলা জেলার মনপুরা উপজেলার চর সাকুচী এলাকা থেকে অপহৃত ৭ জেলেকে নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়া এলাকার মেঘনা নদী থেকে উদ্ধার করেছে হাতিয়া কোস্টগার্ড। তবে এসময় কোন অপরহণকারীকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

 

রোববার দুপুরে উদ্ধারকৃত জেলেদের তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। উদ্ধারকৃত জেলেদের সবার বাড়িই ভোলার মনপুরা উপজেলায়।

 

উদ্ধারকৃত জেলেরা হলেন, ভোলার মনপুরা উপজেলার রহমনপুর গ্রামের মোজাহার বেপারির ছেলে জাহাঙ্গীর, একই এলাকার সোলায়মানের ছেলে বাবুল, খলিল মাঝির ছেলে ইসমাইল, বাসু মাঝির ছেলে বাসেত মাঝি, মাঈন উদ্দিনের ছেলে রিয়াজ, লতিফ সুকানির ছেলে সোহেল ও মফিজের ছেলে সোহেল মিয়া।

 

জানা গেছে, গত শনিবার রাতে মনপুরার রহমনপুর গ্রামের ৭জন জেলে আলাদা ইঞ্জিন চালিত নৌকাসহ মেঘনায় মাছ ধরতে যায়। রাত ১২টার দিকে মেঘনা নদীর চর সাকুচী এলাকায় নদীতে জাল ফেলেন তারা। রাত ২টার দিকে জেলেদের নৌকায় হামলা চালায় একদল ডাকাত। এসময় তারা নৌকাসহ ৭জন জেলেকে অপরহণ করে নিয়ে যায়। পরে অপহৃত জেলেদের পরিবারের কাছে মোটা অংকের মুক্তিপণ দাবি করা হয়।

 

কোস্টগার্ড হাতিয়ার স্টেশন কমান্ডার লে. ইফতেখারুল আলম জানান, অপহৃতদের পরিবারের পক্ষ থেকে খবর পেয়ে কোস্টগার্ড বিসিজি স্টেশন হাতিয়ার একটি দল রোববার ভোরে হাতিয়ার মেঘনা নদীর চর আতাউর এলাকায় অভিযান চালায়। অভিযানকালে কোস্টগার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে পাশ্ববর্তী একটি গহীন জঙ্গলে পালিয়ে যায় ডাকাত দল। পরে ওই স্থান থেকে অপহৃত ৭ জেলেকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার করা হয়েছে জেলেদের ব্যবহৃত নৌকাগুলো। ডাকাত দলের সদস্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Sharing is caring!