Sharing is caring!

৯৫ বছর বয়সী ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং বর্তমানে তিনি মৃদু উপসর্গে ভুগছেন। চলতি সপ্তাহে তিনি হালকা দায়িত্ব পালন করবেন। রবিবার বাকিংহাম প্যালেসের এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
প্যালেস বলেছে, আজ কোভিড পরীক্ষায় রানি পজিটিভ হয়েছেন। মৃদু ঠান্ডার মতো উপসর্গ অনুভব করছেন তিনি। তবে তিনি আগামী সপ্তাহে উইন্ডসরে হালকা দায়িত্ব পালন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।
বাকিংহাম প্যালেস বলেছে, তিনি অব্যাহতভাবে চিকিৎসাসেবা গ্রহণ করবেন এবং সব ধরনের উপযুক্ত নির্দেশনা মেনে চলবেন।
এর আগে চলতি মাসের শুরুর দিকে দ্বিতীয় বারের মতো করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন ব্রিটিশ রাজ সিংহাসনের উত্তরাধিকারী প্রিন্স চার্লস (৭৩)। প্যালেসের একটি সূত্র বলেছে, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কয়েক দিন আগে রানির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন তিনি।
বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক এবং দীর্ঘসময় ধরে রাজ সিংহাসনে থাকা ব্রিটিশ রানির শারীরিক অবস্থা নিয়ে আলোচনা শুরু হয় গত বছরের অক্টোবরে অজ্ঞাত অসুস্থতায় হাসপাতালে এক রাত কাটানোর পর। পরে হাসপাতালের চিকিৎসকরা ব্রিটিশ এ রানিকে বিশ্রামের পরামর্শ দেন।
ব্রিটিশ রানিই প্রথম; যিনি ব্রিটিশ রাজতন্ত্রের ইতিহাসে প্ল্যাটিনাম জুবিলি উদযাপন করছেন। গত ৬ ফেব্রুয়ারি তার ক্ষমতায় আরোহণের সাত দশক পূর্তি হয়েছে। ১৯৫২ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি বাবা ষষ্ঠ জর্জের মৃত্যুর পর মাত্র ২৫ বছর বয়সে এলিজাবেথের রাজত্বের শুরু হয়েছিল।
গত ৬ ফেব্রুয়ারি রাজ সিংহাসনে সাত দশক পূর্তির দিনে দেওয়া এক ভাষণে রানি বলেছিলেন, ৭০ বছর পর প্রথম সেই দিনটির কথা তিনি আজও স্মরণ করেন। ওই দিনটি মনে আছে ‘আমার বাবা রাজা ষষ্ঠ জর্জের মৃত্যুর জন্য যতটা, আমার রাজত্বের শুরুর জন্যও ততটা।’
ডিউক অব এডিনবার্গ ও রানির স্বামী প্রিন্স ফিলিপ গত বছর মারা যান। আর ব্রিটিশ এই রানির রাজত্বের সময়কালে ব্রিটেনে ১৪ জন প্রধানমন্ত্রী তাদের দায়িত্ব পালন করেছেন।
খবর রয়টার্স

Sharing is caring!