Sharing is caring!

চলমান ইউক্রেন সংকট আরও গভীর হলে ৫ লাখ ইউক্রেনের শরণার্থীকে আশ্রয় দিতে প্রস্তুত আছে রোমানিয়া। এমনটিই জানিয়েছেন রোমানিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী।
ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, রাশিয়া-ইউক্রেন বৈরিতার ভেতরে রুশ বাহিনী ইউক্রেন আক্রমণ করলে ইউক্রেনের শরণার্থীদের নিজ দেশে আশ্রয় দিতে বাঁধা নেই বলে জানিয়েছে রোমানিয়া।
রোমানিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী ভাসিলে ডিনকু বলেন, আমরা পাঁচ লাখের বেশি শরণার্থী গ্রহণ করতে পারি। এর জন্য আমাদের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পাশাপাশি অন্যান্য প্রতিষ্ঠান প্রস্তুত রয়েছে। যদিও এমন বড় ধরনের সংঘাত আমরা কখনোই আশা করি না। কিন্তু চলমান পরিস্থিতি কি হবে, তা আমরা কেউই জানি না। রাশিয়া ইউক্রেনে আক্রমণ চালালে আমরা ছাড়া পোল্যান্ড ও হাঙ্গেরিসহ অন্যান্য প্রতিবেশী দেশগুলোও শরণার্থী আশ্রয় দিতে প্রস্তুত রয়েছে।
চলমান এই সংকটের ভেতরে এতোদিন ধরে ইউক্রেন আক্রমণের কোনো ধরণের পরিকল্পনা নেই বলে রুশ কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে দাবি করে আসলেও হঠাৎই রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন পূর্ব ইউক্রেনের রুশপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের নিয়ন্ত্রিত দুটি অঞ্চল লুহানস্ক ও দোনেৎস্কে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন। এছাড়াও ঐসকল অঞ্চলে রুশ সেনা অগ্রসর হওয়ার আদেশও দিয়েছেন তিনি। পুতিনের এমন ঘোষণার পরই পশ্চিমাদের আগের থেকেই করা রাশিয়ানদের ইউক্রেন আক্রমণের শঙ্কা সত্যি হলো কিন এমন গুঞ্জনও উঠেছে বিশ্বমঞ্চে।

Sharing is caring!