Sharing is caring!

চট্টগ্রামে প্রথম ওয়ানডের পর বাংলাদেশকে টি-টোয়েন্টি ব্যাটিংয়ে বেশি মনোযোগী হতে দেখা যায়। শুধু টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে থাকা চার ক্রিকেটারকে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে নিয়ে যাওয়া হয়। সেই অনুশীলনে বাড়তি আকর্ষণ ছিলেন মুনিম শাহরিয়ার। এ বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। নতুন ধারায়, আক্রমণাত্মক ক্রিকেট নিয়ে নিজেদের গুছিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা বাংলাদেশের। সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাস দলে ফেরায় এবং তরুণ মুনিম শাহরিয়ারকে নিয়ে সেই পরিকল্পনায় এগোচ্ছে টাইগাররা। ম্যাচের ফল যাই হোক না কেন, নতুন ধারা ঠিক রেখে সামনে এগোতে চায় স্বাগতিকরা। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আফগানিস্তান ভিন্ন দল। প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ আজ বেলা ৩টায় শুরু হবে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।
আফগানিস্তানের সবচেয়ে প্রিয়, বাংলাদেশের জন্য কঠিন ফরম্যাট টি-টোয়েন্টি। আফগানিস্তানও বিশ্বকাপে প্রত্যাশা মেটাতে পারেনি। বাংলাদেশ নিজেদের শেষ ৮ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে হেরেছে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের পরিকল্পনা ওয়ানডে সিরিজে অনেকটা বোঝা গেছে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটেও সেই একই পরিকল্পনা থাকছে। মিরপুরের উইকেটে কাল ঘাস দেখা গেল। আফগান স্পিনাররা যেন দাপট দেখাতে না পারেন, এজন্যই এমন পরিকল্পনা। তবে বাংলাদেশ তিন পেসার খেলাবে, নাকি দুজন খেলবেন, সেটা নিশ্চিত করেননি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপের এখনো ৫-৬ মাস বাকি। সামনে বেশ কিছু ম্যাচ আছে আমাদের। দল গুছিয়ে নেওয়ার জন্য এখন থেকে প্রস্তুত হওয়া প্রয়োজন। আমরা কী ধরনের ক্রিকেট খেলতে চাই। সফল হতেও পারি, না-ও পারি। তবে মানসিকতা যেন সব সময় একই রকম থাকে, এটাই গুরুত্বপূর্ণ।’
চট্টগ্রামে ওয়ানডে সিরিজ শেষ হয়েছে সোমবার। পরের দিন ঢাকায় ফিরেছে দুদল। বুধবার অনুশীলন করেছে সবাই। ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল নেই এই ফরম্যাটে। বিশ্বকাপের পর লিটন ও মুশফিককে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে বাদ দেওয়া হয়েছিল। তারা ফিরেছেন। ইনজুরির কারণে ওই সিরিজে না থাকা সাকিবও আছেন এবার। সম্ভাব্য সেরা দলটাই পাচ্ছে স্বাগতিকরা। লিটনের সঙ্গে ওপেনিংয়ে আজ অভিষেক হতে পারে মুনিম শাহরিয়ারের। বিপিএলে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে আলোয় আসা মুনিম অনুশীলনে আরও আগ্রাসী। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ নেই ছন্দে। বোলিংয়ে মোস্তাফিজুর রহমান ও শরীফুল ইসলামের সঙ্গে থাকতে পারেন তাসকিন আহমেদ। একজন বেশি স্পিনার খেলালে নাসুম আহমেদকে দেখা যেতে পারে। ওয়ানডে একাদশ থেকে পরিবর্তন আসতে পারে দুটি। মেহেদী হাসান মিরাজের জায়গায় খেলবেন আরেক অফ-স্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর সামনে দারুণ এক মাইলফলকের হাতছানি। দেশের প্রথম ব্যাটার হিসাবে টি-টোয়েন্টিতে দুই হাজার রান স্পর্শ করার জন্য আর মাত্র ২৯ রান দরকার তার। সাকিব আল হাসানের প্রয়োজন ১০৬ রান।
ছয় টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে মুখোমুখি হয়ে বাংলাদেশ আফগানিস্তানের বিপক্ষে জিতেছে মাত্র দুটিতে। মিরপুরে সিরিজ জিততে পারলে আফগানিস্তানকে টপকে র‌্যাংকিংয়ে আট নম্বরে উঠে যাবে বাংলাদেশ। ২-০ ব্যবধানে তে হারলে নয় থেকে ১০ নম্বরে নেমে যেতে হবে। আফগানিস্তান ৮ ও বাংলাদেশ রয়েছে ৯ নম্বরে।
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর আফগানিস্তানও নতুনভাবে দল সাজিয়েছে। তারা বেশ কয়েকজন তরুণ ক্রিকেটার নিয়ে বাংলাদেশে এসেছে। দারউইস রাসুল ও ওমরজাইয়ের আজ অভিষেক হতে পারে। মিরপুরের উইকেট সম্পর্কে ভালো ধারণা রয়েছে রশিদ, নবীদের। কাল উইকেট দেখে খুশি হতে পারেননি তারা। অনুশীলনের শেষদিকে হজরতউল্লাহ জাজাই, রহমানউল্লাহ গুরবাজের শটগুলো ৭০-৮০ গজ পেরিয়ে কখনো ৯০ গজে গিয়ে থামছিল। আজ সেটা নিশ্চয়ই ম্যাচেও তারা দেখাতে চাইবেন।
বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ
মুনিম শাহরিয়ার, লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, নুরুল হাসান সোহান, ইয়াসির আলী, আফিফ হোসেন, মেহেদি হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম/তাসকিন আহমেদ ও নাসুম আহমেদ।
আফগানিস্তানের সম্ভাব্য একাদশ
হজরতুল্লাহ জাজাই, রহমানুল্লাহ গুরবাজ, ডারউইশ রাসুলি, নাজিবুল্লাহ জাদরান, মোহাম্মদ নবী, আজমতুল্লাহ ওমরজাই, করিম জানাত, রশিদ খান, মুজিব উর রহমান, ফজলহক ফারুকি ও ফরিদ আহমেদ।

Sharing is caring!