Sharing is caring!

সুবর্ণচর (নোয়াখালী) প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালী সুবর্ণচর উপজেলার ৮ নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়নে তুচ্ছ ঘটনায় শ্যালককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ।

 

নিহত শ্যালকের নাম মো.রাসেদ (১৯)। তিনি উপজেলার ৮নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের আদর্শ কলোনীর মৃত মো.সাহাব উদ্দিন ওরফে শাকুর ছেলে এবং পেশায় একজন জেলে ছিলেন।

 

গতকাল বৃহস্পতিবার (৩ মার্চ) রাত পৌনে ৯টার দিকে উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের বাতেন মার্কেট সংলগ্ন আদর্শ কলোনীতে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত দুলাভাই তফজল পলাতক। তফজল একই এলাকার এনামুল হকের ছেলে।

 

নিহতের বোন সুরমা ও খালা গুনাই বিবি অভিযোগ করে বলেন, তফজল রাসেদের খালাতো বোনের জামাই। তারা একই কলোনীতে বসবাস করে। পাওনা টাকা ও চুরির ঘটনা এবং পূর্ব বিরোধ নিয়ে তফজলের সঙ্গে কয়েক দিন আগে শ্যালক রাসেদের বিরোধ দেখা দেয়। এর জের ধরে গত বুধবার ২মার্চ বিকেলে রাসেদকে পিঁড়ি দিয়ে মাথায় আঘাত করে গুরুত্বর আহত করে তফজল। এরপর বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে আদর্শ কলোনীর হাসেম মাঝির বসত ঘরে রাসেদকে আটক করে পুনরায় তফজল, হাসেম মাঝি ও তাঁর স্ত্রী চামেলা বেধড়ক মারধর করে। এতে গুরুত্বর আহত হন রাসেদ। একপর্যায়ে রাসেদ হামলাকারীদের হাত থেকে ছাড়া পেয়ে বসত ঘরের সামনে এসে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে সেখানেই মারা যায়।

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে চরজব্বর থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মোশারেফ হোসেন জানান, খবর পেয়ে রাত সাড়ে ৩টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। পরবর্তীতে ভুক্তভোগী পরিবারের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে এ ঘটনায় আইনগত প্রদক্ষেপ নেওয়া হবে।

Sharing is caring!