Sharing is caring!

থাইল্যান্ডে বিলাসবহুল যে রিসোর্টে শেন ওয়ার্ন অবস্থান করছিলেন সেখানে থেকে বের ৪ নারীর বেরিয়ে যাওয়ার একটি হয়ে সিসিটিভির ফুটেজ সামনে এসেছে। স্থানীয় পুলিশের বিবৃতি অনুযায়ী, চারজন থাই নারী শেন ওয়ার্ন এবং তার বন্ধুদের ম্যাসাজ দিতে এসেছিলেন। কিন্তু ততক্ষণে শেন ওয়ার্নের মৃত্যুর বিষয়টি সামনে চলে এসেছিল।
অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি শেন ওয়ার্নের মরদেহের ময়নাতদন্তের পর বলা হয়েছিল, তার মৃত্যু স্বাভাবিক হয়েছে। এতে কোনো ধরনের সন্দেহ পাওয়া যায়নি। তবে এরই মধ্যে ওয়ার্নের মৃত্যু ঘিরে নতুন ওই তথ্য সামনে এলো।
ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, একজন নারীকে শেন ওয়ার্নের কাছে পা ম্যাসাজ করতে যেতে হয়েছিল, কিন্তু নারীটি যখন ঘরের দরজায় ধাক্কা দেয়, তখন কেউ দরজা খোলেনি এবং তার পরেই তার মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়েছিল। এই ৪ নারীর মধ্যে দুজনও শেন ওয়ার্নের ঘরে গিয়েছিলেন এবং এই নারীরা শেষবারের মতো শেন ওয়ার্নকে জীবিত দেখেছিলেন।
শেন ওয়ার্নের মৃত্যুর বিষয়ে থাইল্যান্ড পুলিশের দেওয়া বিবৃতি অনুযায়ী, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেন ওয়ার্নের মৃত্যু হয় বিকেল ৫টা ১৫ মিনিটে। পুলিশের মতে, ঘরে এমন কিছু পাওয়া যায়নি, যা থেকে বোঝা যায় শেন ওয়ার্নের মৃত্যু একটি ষড়যন্ত্র।
শেন ওয়ার্নের পোস্টমর্টেম রিপোর্টও ইঙ্গিত করে যে কিংবদন্তি স্পিনার হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। একই সময়ে, থাইল্যান্ড পুলিশের প্রধান সিসিটিভি ফুটেজের পরে বলেছেন, শেন ওয়ার্ন নারীদের ম্যাসেজ করার জন্য ডেকেছিলেন, তবে তার মৃত্যুর সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নেই। পুলিশ এর আগে একটি বিবৃতিতে বলেছিল যে শেন ওয়ার্নের ঘর থেকে রক্তের দাগও পাওয়া গেছে, যা সিপিআর দেওয়ার জন্য হয়েছিল।

Sharing is caring!