Sharing is caring!

সেরা সময় কাটাচ্ছেন করিম বেনজেমা। তার নৈপূণ্যে ক্রমাগতভাবে এগিয়ে যাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। পিএসজির বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিকের পর বেনজেমার জোড়া গোলে উড়ে গেল মায়োর্কা। লা লিগায় পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে তো ছিলই দলটি, এই জয়ে সেই সংখ্যাটা আরও বাড়িয়ে নিল কার্লো আনচেলত্তির শিষ্যরা।
সোমবার রাতে প্রতিপক্ষের মাঠের ম্যাচটি ৩-০ গোলে জিতেছে রিয়াল। ভিনিসিউসের গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর দুবার জালে বল পাঠান বেনজেমা।
প্রথমার্ধে আক্রমণে গতি না থাকলেও দ্বিতীয়ার্ধে ঠিকই ঘুরে দাঁড়ায় রিয়াল।
একাদশ মিনিটে বিপদে পড়তে বসেছিল রিয়াল। তবে দূর থেকে সতীর্থের ক্রস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়ে শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি স্বাগতিক ফরোয়ার্ড ভেদাত মুরিখি। ৩৫তম মিনিটে প্রথম নিশ্চিত সুযোগটি পায় মায়োর্কা। তবে রিয়াল ডিফেন্ডার ডি-বক্সে বল ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হলে শট নেন পাবলো মাফেয়ো, কিন্তু তার নিচু শট গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে পোস্টে বাধা পায়।
এর সাত মিনিট পর ভালো সুযোগ পান ভিনিসিউস। বেনজেমার দারুণ পাস ডি-বক্সে পেয়ে শট নেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড, স্লাইড করে ঠেকিয়ে দেন ডিফেন্ডার মাফেয়ো।
দ্বিতীয়ার্ধের দশম মিনিটে গোলের দেখা পায় রিয়াল। বেনজেমা বল ধরে বাঁ দিকে ভিনিসিউসকে পাস দেন ভালভের। বিনা বাধায় নিচু শটে গোলরক্ষকের পায়ের ফাঁক গলে দলকে এগিয়ে নেন ভিনিসিউস। আসরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতার এটি ১৪তম গোল।
৭৭তম মিনিটে সফল স্পট কিকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন বেনজেমা। ডি-বক্সে ভিনিসিউস ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। বল জালে জড়াতে ভুল হয়নি ফরাসি ফরোয়ার্ডের।
এর পাঁচ মিনিট পরই বদলি ডিফেন্ডার মার্সেলোর ক্রসে দারুণ হেডে জয় নিশ্চিত করে ফেলেন বেনজেমা।
এ নিয়ে লা লিগায় টানা চার ও সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা পাঁচ ম্যাচে জালের দেখা পেলেন বেনজেমা। এই পাঁচ ম্যাচে আট গোল করলেন তিনি। লা লিগায় সর্বোচ্চ ২২ গোল নিয়ে শীর্ষে ৩৪ বছর বয়সী এই তারকা।
শেষ দিকে ব্যবধান কমানোর ভালো একটি সুযোগ পায় মায়োর্কা। তবে থিবো কোর্তোয়ার বাধা ভাঙতে পারনি তারা।
এই জয়ে সেভিয়ার চেয়ে ১০ পয়েন্টে এগিয়ে গেল রিয়াল। ২৮ ম্যাচে ২০ জয় ও ৬ ড্রয়ে তাদের পয়েন্ট ৬৬। সমান ম্যাচে সেভিয়ার পয়েন্ট ৫৬।
আগামী সপ্তাহে ক্লাসিকোয় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার মুখোমুখি হওয়ার আগে এই জয়ে আরও আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠবে রিয়াল।

Sharing is caring!