Sharing is caring!

তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের সঙ্গে ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। দুই ফরম্যাটের স্কোয়াডেই নাম ছিল দুই পেসার তাসকিন আহমেদ আর শরিফুল ইসলামের। ওয়ানডে সিরিজের পর একটি টেস্ট শেষ হয়েছে। বাকি আরও একটি টেস্ট। সেই ম্যাচটি মাঠে গড়ানোর আগেই দেশে ফিরে এলেন তারা।
বুধবার (৬ এপ্রিল) বিকাল ৫টার দিকে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামেন তাসকিন আর শরিফুল। দুই পেসারই ভুগছেন ইনজুরিতে। সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচটি তো বটেই, চলতি মাসে তাদের মাঠে ফেরা নিয়ে আছে সংশয়। এজন্য দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশে ফিরে এসেছেন দুই পেসার।
টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে অনুশীলনে গোড়ালিতে চোট পেয়ে সিরিজের প্রথম টেস্টে খেলতে পারেননি শরিফুল। একই কারণে দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচটিও খেলা হবে না তার। এদিকে ওয়ানডে সিরিজে দুর্দান্ত বোলিং করা তাসকিন প্রথম টেস্টের একাদশে ছিলেন। সেই ম্যাচের ইনিংসে তেমন কিছু করতে পারেননি। ৬৯ রান দিয়ে ছিলেন উইকেটশূন্য। দ্বিতীয় ইনিংসে চোট নিয়েই বল করেন। ১১ ওভার হাত ঘুরে ২৪ রান খরচায় নেন ২ উইকেট।
এই দুই পেসারকে নিয়ে জাতীয় দলের ফিজিও বায়েজিদ ইসলাম এক বিবৃতিতে বলেন, ‘প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনে খেলার সময় ডান কাঁধে ব্যথা এবং নড়াচড়া করতে অসুবিধার কথা বলেন তাসকিন। দ্বিতীয় ইনিংসে বোলিংয়ের জন্য তিনি ফিজিওথেরাপি, সহায়ক টেপিং এবং ব্যথানাশক ঔষধ নেন। তার সুস্থ হতে প্রায় তিন সপ্তাহ সময় লাগতে পারে।’
শরিফুল প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘২৯ মার্চ অনুশীলনের সময় বাম পায়ের গোড়ালিতে ব্যথা অনুভব করেন শরিফুল। তার লিগামেন্টে গ্রেড-১ টিয়ার ধরা পড়েছে। তিনি ইতোমধ্যে তার পুনর্বাসন শুরু করেছেন এবং সম্ভবত এই মাসের শেষের দিকে অনুশীলন শুরু করবেন।’

Sharing is caring!