Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

 

নোয়াখালীর কবিরহাট ও সোনাইমুড়ী উপজেলার পৃথক স্থানে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুনে ১০টি দোকান ও ৮টি বসত ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। আগুনে দোকান ও ঘরগুলোতে থাকা মূল্যবান মালামাল পুড়ে অন্তত ৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ক্ষতিগ্রস্থদের।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাত আড়াইটার দিকে কবিরহাট উপজেলার ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের মকবুল চৌধুরীহাট বাজারে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে একটি দোকানে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। মুহুর্ত্বের মধ্যে আগুন দ্রুত দু’পাশে ছড়িয়ে পড়লে মোট ১০টি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে দোকানগুলোতে থাকা মূল্যবান মালামাল পুড়ে প্রায় ৪ কোটি ৭০লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। খবর পেয়ে কবিরহাট ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় ২ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

 

এরআগে রাত সাড়ে ৮টার দিকে সোনাইমুড়ী উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের ধন্যপুর গ্রামের মুন্সি বাড়িতে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের ঘটনা ঘটে। আগুনে ওই বাড়ির ৭টি বসত ঘরে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে প্রায় ৩০লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। খবর পেয়ে সোনাইমুড়ী ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় আড়াই ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

 

অগ্নিকান্ডের তথ্যগুলো নিশ্চিত করেছেন কবিরহাট ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মো. সেলিম ও সোনাইমুড়ীর স্টেশন অফিসার রাকিবুল ইসলাম।

ধানসিড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ কামাল খান জানান, অগ্নিকান্ডের সময় তিনি ঢাকায় ছিলেন খবর পেয়ে তিনি সকাল ৯টায় ঘটনাস্থলে এসে পৌছান। তিনি সব জায়গায় জানিয়েছেন। প্রশাসনের পাশাপাশি তিনি তার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের পাশে থাকবেন এবং প্রাথমিক ভাবে সকলকে নতুন করে ব্যবসা শুরু করার জন্য আর্থিক সহযোগিতা করবেন তিনি।

Sharing is caring!