Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের সিরাজপুর ইউনিয়নের শাহাজাদপুর গ্রামে প্রশান্ত সুভাস চন্দ নামে স্থানীয় এক সাংবাদিককে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করেছে দূর্বৃত্তরা। এ সময় সন্ত্রাসীরা সুভাসের মা দেবী রানী চন্দ ও ছেলে প্রমীত প্রতাপ চন্দকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে। আহতদের অভিযোগ বসুরহাট মেয়র আবদুল কাদের মির্জার সমর্থকরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। যদিও তার দায় অস্বীকার করেছেন মেয়র মির্জা।

 

বৃহস্পতিবার দুপুর পৌনে একটার দিকে শহিদ উল্যাহ ওরফে কেচ্চা রাসেলের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা সুভসের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় সাংবাদিক সুভাসের বসত ঘরও ভাঙচুর করা হয়।

হাসপাতালে সুভাসের স্বজনরা জানান, আবদুল কাদের মির্জার কাছের লোক কেচ্চা রাসেলের নেতৃত্বে ২৫-৩০ আগ্নেয়াস্ত্র ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত সুভাসের বসত ঘরে হামলা চালায়। এসময় তারা সুভাসকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করে। পরে তার ছেলে ও মাকেও কুপিয়ে-পিটিয়ে আহত করা হয়। সন্ত্রাসীরা তার বসত ঘরটিও কুপিয়ে তছনছ করে দিয়েছে।

এ বিষয়ে পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন জানান, লিখিত অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ দিকে কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট রূপালি চত্ত্বরে আ.লীগের দুটি গ্রুপের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত এ ঘোষণা বলবৎ থাকবে বলে জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. জিয়াউল হক মীর।

Sharing is caring!