Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিবেদক:

 

 

নোয়াখালীর সদর ও বেগমগঞ্জ উপজেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। জেলায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাড়াল ১৩২। এদিকে জেলায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ১১৬জন। জেলায় মোট শনাক্ত বেড়ে ১০হাজার ৬৮৫জন। নতুন আক্রান্তের হার শতকরা ২৬ দশমিক ২৪ভাগ। চতুর্থ দফায় চলমান লকডাউন বাড়ানো হয়েছে আরও ৭দিন। আগামীকাল শনিবার থেকে কার্যক্রর হওয়া এ লকডাউনে নোয়াখালী পৌরসভা, সদরের ৬টি ইউনিয়নের সাথে যুক্ত করা হয়েছে বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌরসভা, একলাশপুর ও মীরওয়ারিশপুর ইউনিয়ন।

 

শুক্রবার সকালে তথ্যগুলো নিশ্চিত করেছেন, জেলা সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার। এসময় তিনি আরও জানান, গত ২৪ঘন্টায় জেলার তিনটি পিসিআর ল্যাবে ৪৪২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। যার মধ্যে সদরে ৫২, সুবর্ণচরে ৪, বেগমগঞ্জে ২৫, সোনাইমুড়ীতে ৪, চাটখিলে ১০, সেনবাগে ১, কোম্পানীগঞ্জে ১৪ ও কবিরহাট উপজেলার ৬জন রোগী রয়েছে। জেলায় এপর্যন্ত মোট সুস্থ্য হয়েছেন ৭হাজার ৪১০জন, শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থ্যতার হার শতকরা ৬৯দশমিক ৩৫ভাগ। আইসোলেশনে রয়েছেন ৩১৪৩জন ও শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামের অস্থায়ী কোভিড হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৫৭জন রোগী।

 

এদিকে নোয়াখালী পৌরসভা ও ৬টি ইউনিয়নে চলমান লকডাউন কার্যক্রর করতে নিয়মিত অভিযান চালাচ্ছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। শহরের গুরুত্বপূর্ণস্থানে বসানো হয়েছে পুলিশের চেক পোস্ট। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত লকডাউনকৃত এলাকায় স্বাস্থ্যবিধি না মানায় অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন ব্যক্তি প্রতিষ্ঠানকে অর্থদণ্ড করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

Sharing is caring!