Sharing is caring!

নিজেস্ব প্রতিবেদক:

 

 

নোয়াখালীর জেলা শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে মাইজদী পৌরবাজার এলাকা থেকে পশ্চিমে প্রায় তিন কিলোমিটার দৈর্ঘ্য ফকিরপুর খালপাড় থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে পরিষ্কার কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

 

রোববার (৪ জুলাই) দুপুরে জেলা প্রশাসন ও নোয়াখালী পৌরসভার উদ্যোগে ফকিরপুর খালপাড়ে থাকা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও খাল পরিষ্কার কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করা হয়।

 

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক মোহাম্মাদ খোরশেদ আলম খান, নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র শহিদ উল্যাহ খান সোহেল, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমা, সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতিমা সুলতানা প্রমূখ।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান বলেন, নোয়াখালী নিচু এলাকা, এখানে সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি জমে যায়। আমাদের এই পানি নিষ্কাশনের জন্য প্রচুর খাল আছে। অনেকগুলো খাল সচল আছে, অনেকগুলো খাল অবৈধভাবে দখলদাররা দখল করে রেখেছে। অনেকগুলো খাল অপরিষ্কার অবস্থায় আছে। আমরা নোয়াখালী পৌরসভাকে সাথে নিয়ে আমাদের ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের সহায়তায় সবাই মিলে আমরা এই খালগুলো পুনঃদখলে নিয়ে সংস্কার করবো। খালগুলো সংস্কার করে পানি প্রবাহের বিষয়টি নিশ্চিত করা হবে।

 

জেলা প্রশাসক আরও বলেন, যেসব জায়খায় সরকারি খাল দখল করে অবৈধ স্থাপনা গড়ে তোলা হয়েছে, সেখানে দখলদারদের বলা হয়েছে নিজেদের স্থাপনা নিজেরাই যেন গুটিয়ে নেন। তা না হলে আমরা ম্যাজিস্ট্রেট এবং পুলিশ দিয়ে তা গুটিয়ে দিবো। তিনি বলেন, খুব শ্রীঘ্রই আমরা সকল উপজেলার পৌর এলাকাসহ বড় বড় খালগুলো দখলমুক্ত করে তা সংস্কার করবো। খাল দখলমুক্ত করতে এবং পরিষ্কার কার্যক্রমে নাগরিকদের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

Sharing is caring!