Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

 

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দেশ ব্যাপী কঠোর লকডাউন নোয়াখালীতে ঢিলেঢালা হয়ে পড়েছে। বিধি নিষেধ অমান্য করায় শনিবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে ৩৬টি মামলায় ৩৯জনকে ৫২হাজার ৬৫০টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। জনগনকে সচেতন করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিতরণ করা হয়েছে ২৫০টি মাস্ক।

 

রোববার সকাল থেকে জেলার বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা গেছে, জেলার প্রতিটি সড়কে বেড়েছে রিকশা, মোটরসাইকেলসহ ছোট-খাট যানবাহন চলাচল। নোয়াখালী সুপার মার্কেটসহ জেলার সকল মার্কেট, শপিংমল বন্ধ থাকলেও বেশির ভাগ দোকান-পাট খোলা রয়েছে। যার মধ্যে পৌর এলাকাগুলোতে অর্ধেক সাটার খোলা রেখে চলছে দোকান-পাট ক্রয়বিক্রি। সড়কে বেড়েছে মানুষের উপস্থিতি। বেশির ভাগ মানুষই স্বাস্থ্য বিধি মানছেন না। জেলা শহরসহ গুরুত্বপূর্ন স্থানে পুলিশের চেক পোস্ট থাকলেও তাতে কোন তৎপরতা দেখা যায়নি। দূরপাল্লার গাড়ী বন্ধ থাকলেও অবাধে চলাচল করছে ব্যক্তিগতসহ অনান্য যানবাহন।

 

এদিকে লকডাউন কার্যকর করতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, সহকারি কমিশনার (ভূমি)সহ জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করছেন। সড়কে টহলের পাশাপাশি যানবাহনে তল্লাশি চালাচ্ছেন সেনাবাহিনী, র‌্যাব ও বিজিবি সদস্যরা। বিভিন্ন স্থানে স্থানীয় লোকজনকে স্বাস্থ্য সচেতন করার পাশাপাশি মাস্ক বিতরণ করছেন তাঁরা। কয়েকটি স্থানে সচেতনতা মূলক মাইকিং করা হচ্ছে।

 

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান জানান, মানুষকে স্বাস্থ্য সচেতন করতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে শনিবার দিনব্যাপী আমাদের ১১টি দল কাজ করেছে। স্বাস্থ্যবিধি অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আইন অমান্যকারী ৩৯ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ৫২হাজার ৬৫০টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

Sharing is caring!