Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

 

নোয়াখালী ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল থেকে এক নবজাতক শিশু চুরি হওয়ার দু’দিন পর উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে পুলিশ কবিরহাট প্রাইভেট হাসপাতালের ম্যানেজার জুলফিকার হায়দার সোহাগকে (৪০) আটক করেন। সে উপজেলার ঘোষবাগ ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মৃত আব্দুল হালিমের ছেলে।

গতকাল শুক্রবার (২০ আগস্ট) রাত ১০টার দিকে কবিরহাট উপজেলার ঘোষবাগ ইউনিয়নের সাহাজির হাট বাজার এলাকার সোবহান মুন্সি বাড়ির আলী আহমদের ঘর থেকে ওই নবজাতককে উদ্ধার করে পুলিশ।

নবজাতক শিশুটি নোয়াখালী পৌরসভার কৃষ্ণরামপুর গ্রামের মো. আবদুল মালেক ও মোছাস্মৎ জুলেখা বেগম দম্পতির ছেলে।

এর আগে, বুধবার (১৮ আগস্ট) রাত ৮টার দিকে নোয়াখালী ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের ২ নং ওয়ার্ড থেকে এ নবজাতক চুরির ঘটনা ঘটে। জানা যায়, গত সোমবার অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে নবজাতক শিশুটির জন্ম হয়।

উল্লেখ্য, গত বুধবার রাতে নবজাতক শিশুর মা মোসাস্মৎ জুলেখা বেগম তার দুই দিন বয়সী শিশু সন্তানকে বেডে রেখে টয়লেটে যান। টয়লেট থেকে এসে দেখেন তার সন্তানটি বেডে নেই। এরপর হাসপাতালের বিভিন্ন ফ্লোর এবং ওয়ার্ডে খুঁজে সন্তানের সন্ধান পাননি।

নোয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) মো.শহীদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহনের প্রস্তুতি চলছে।

Sharing is caring!