Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিবেদক:

 

 

নোয়াখালীর সদর উপজেলার চরমটুয়া ইউনিয়নের একটি ডোবাতে ভাসমান অবস্থায় আব্দুর রহিম (১৯) নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে সুধারাম থানা পুলিশ। নিহতের নাকে আঘাতের চিহৃ ও পা বাঁধা ছিল।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে চরমটুয়া ৩নং ওয়ার্ড বানচারাম গ্রাম থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত আব্দুর রহিম সদর উপজেলার আন্ডারচর ইউনিয়নের মাইজচরা গ্রামের হোসেন আহমদের ছেলে। সে পেশায় একজন অটোরিকশা চালক ছিল।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনেরমত সোমবার বিকেলে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয় রহিম। অন্যদিন রাত ১০টার মধ্যে বাড়িতে ফিরে আসলেও সোমবার আর সে বাড়ি ফিরে আসেনি। মঙ্গলবার সকালে পাশ্ববর্তী ইউনিয়নের বানচারাম এলাকার সড়কের পাশের একটি ডোবার পানিতে ভাসমান অবস্থায় রহিমের লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয় লোকজন বিষয়টি তাদের জানায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সড়ক দিয়ে যাওয়ার সময় ডোবাতে লাশটি দেখতে পেয়ে থানায় জানালে পুলিশ পা বাঁধা অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে। নিহতের লাশ থেকে প্রায় ৩ কিলোমিটার দূরে রিকশাটি পাওয়া যায়।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Sharing is caring!