Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

 

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলায় ইটবাহী ট্রাক চাপায় সাবরিনা আক্তার মিতু (২২) নামের এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী নিহত হয়েছেন। ঘটনায় ঘাতক ট্রাকটি আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় লোকজন। কিন্তু ঘটনার পরপর ট্রাকের চালক পালিয়ে যাওয়ায় তাকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

 

শনিবার দুপুরে কুমিল্লা-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কের সোনাইমুড়ী পৌরসভার রামপুর মোল্লা বাড়ির সামনে এ দূর্ঘটনা ঘটে। নিহত সাবরিনা আক্তার মিতু সোনাইমুড়ীর বজরা ইউনিয়নের শীলমুদ গ্রামের ভুঁইয়া বাড়ির মর্তুজা ভুঁইয়ার মেয়ে। সে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের গনযোগযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ৪র্থ বর্ষের ছাত্রী।

 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকালে ঢাকার যাওয়ার উদ্দেশ্যে আল বারাকা বাস কাউন্টার থেকে একটি টিকেট নেয় মিতু। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নানার বাড়ি রামপুর থেকে বের হয়ে বাস কাউন্টারের উদ্দেশ্যে কুমিল্লা-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়ক পার হচ্ছিল সে। এসময় কুমিল্লা থেকে ছেড়ে আসা দ্রুতগতির একটি ইট বোঝাই মিনি ট্রাক (ফেনী ড- ১১-০১৬৭) তাকে চাপা দেয়। এতে ট্রাকেপৃষ্ঠ হয়ে ঘটনাস্থলে নিহত হয় মিতু। পরে স্থানীয় লোকজন ট্রাকটি আটক করতে পারলেও পালিয়ে যায় চালক।

 

সোনাইমুড়ী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইব্রাহীম খলিল বলেন, আটককৃত ট্রাক ও নিহতের লাশ হাইওয়ে পুলিশে হস্তান্তর করা হয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হবে এবং পলাত ট্রাক চালককে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Sharing is caring!