Sharing is caring!

মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। পরিজনের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে রাজধানী থেকে লাখ লাখ মানুষ ছুটবেন গ্রামে। ঈদযাত্রায় ঘরে ফেরা মানুষদের এবার চরম ভোগান্তির আশঙ্কা করা হচ্ছে। রাজধানী থেকে উত্তরাঞ্চলের ১৬টি জেলায় যাওয়ার একমাত্র সড়কে সিরাজগঞ্জের কড্ডার মোড় থেকে হাটিকুমরুল পর্যন্ত নির্মাণ কাজের জন্য বেহাল দশা। এখনই ২০ মিনিটের পথ পাড়ি দিতে সময় লাগে আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা। শুধু সড়কে নয়, দুর্ভোগে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে রেল ও নৌ-পথের যাত্রীদেরও।

শিমুলিয়া-পাটুরিয়া, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়াসহ সব ফেরি ঘাটেই এখনই পারাপারের জন্য মাইলের পর মাইল যানবাহন দাঁড়িয়ে থাকে। ঢাকা-কুষ্টিয়ার রাস্তায় অনেক স্পটে যানজট নিত্যদিনই লাগছে। ঈদ উপলক্ষে আগাম এসব রাস্তা যানবাহনের যাতায়াতের জন্য প্রস্তুত না করায় ভয়াবহ হয়ে উঠতে পারে সড়কের যানজট।

ঈদকে সামনেরেখে ইতোমধ্যে বাস-ট্রেনের টিকিট অগ্রিম বিক্রি শুরু হয়েছে। রমজান শুরু হওয়ার প্রথম দিন থেকেই রাজধানীর বিভিন্ন সড়কের ভয়াবহ যানজট নগরবাসীর জন্য নিত্য দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এক দিকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সরকারি-বেসরকারি অফিস, কলকারখানাসহ সকল প্রতিষ্ঠান রয়েছে খোলা। অন্যদিকে রাজধানীতে চলমান রয়েছে বেশকয়েকটি মেগাপ্রকল্পের কাজ। এছাড়াও রাজধানীর বাইরে মহাসড়কগুলোতে চলছে উন্নয়ন প্রকল্পের বিভিন্ন কাজ। এসব কারণে এবছর ঈদে গ্রামের বাড়িতে যাওয়ার ইচ্ছুক নগরবাসীকে চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হবে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

ঢাকা-কুষ্টিয়ার বাস চালক খলিলুর রহমান বিডি২৪লাইভকে বলেন, ঈদের সামনে রাস্তায় গাড়ীর চাপ বাড়ে। রাস্তার মোড়গুলোতে গাড়ি যেন আটকা না পড়ে সে ব্যবস্থা করা প্রয়োজন। দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে শুধু অভিযানসর্বস্ব হলে চলবে না। যানজট মুক্ত করতে আগে থেকেই কিন্তু প্রস্তুতি নিলে সমাধান অনেক সহজ হয়। ঈদের সময়ে এক রুটের যানবাহন আরেকটি রুটে যায় তখন গাড়ির চাপও বেড়ে যায়।

অন্যদিকে আগামী দুই-এক দিনের মধ্যে রাজধানীর যানজট কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, যানজট নিরসনের জন্য ট্রাফিক পুলিশের পাশাপাশি নিরাপত্তা বাহিনী, পুলিশ বিভাগ যথাসাধ্য চেষ্টা করছে। আগামী সাত দিনে তারা কী করবেন, তার একটি কর্মপদ্ধতিও তারা বের করেছেন। আশা করি, দুই-এক দিনের মধ্যে যানজট কিছুটা নিয়ন্ত্রণ হবে।

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরে সচিবালয়ে সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ আশা প্রকাশ করেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আসন্ন ঈদুল ফিতরের আগে দেশের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা, গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন-ভাতাদি পরিশোধ, সড়ক মহাসড়ক নিরাপদ ও যানজটমুক্ত রাখাসহ প্রাসঙ্গিক অন্যান্য বিষয় নিয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভা শেষে রাজধানীর যানজট নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ঢাকায় অনেকগুলো উন্নয়ন কাজ চলছে। এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, মেট্রোরেল ও ফ্লাইওভারের কারণে কিছু প্রতিবন্ধকতা আছে। এই যানজটের জন্য সেটিও একটি কারণ। এ ছাড়া কোভিডের পর সবকিছু খুলেছে, আবার ঈদও এসে গেছে। সবাই মার্কেটমুখী। যানজটের কিছু কারণের মধ্যে এগুলোও অন্যতম।

Sharing is caring!