Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

 

 

সুবর্ণচরে শেখ রাসেল নগর উদ্বোধন, কেক কাটা, ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং, আলোচনা সভা ও মিলাদ, দোয়া মাহফিলের মধ্যে দিয়ে জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেল এর ৫৯তম জন্মদিন পালন করা হয়েছে।

 

মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সুবর্ণচর উপজেলার ১ নং চরজব্বর ইউনিয়নের পশ্চিম চরজব্বর ৬নং ওয়ার্ডে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে চরজব্বর ইউনিয়ন পরিষদ।

 

ছাত্রলীগ নেতা ইয়াছিন আরাফাতের সঞ্চালনায় ও চরজব্বর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নুর ইসলাম মানিকের সভাপতিত্বে শেখ রাসেল নগর উদ্বোধন করেন, ১ নং চরজব্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট ওমর ফারুক।

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ টেলিভিশন এর সাবেক উপ-মহাপরিচালক স্পিকার মরহুম আব্দুল মালেক উকিলের পুত্র বাহার উদ্দিন খেলন।

 

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সাবেক কাস্টম অফিসার বিশিষ্ঠ কথা সাহিত্যিক সিরাজুল ইসলাম মুনির, চরজুবলী চেয়ারম্যান সাইফুল্যাহ খসরু, সুবর্নচর উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্নসাধারন সম্পাদক মিমিজানুর রহমান দিপক, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা এডভোকেট জসিম উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগ আহবায়ক আব্দুল্যাহ আল মামুন জাবেদ, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা বাবুল চৌধুরী, আওয়ামীলীগ নেতা বশির আহম্মদ, চরজব্বর ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার শাহজাহাসহ ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ এলাকার নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ।

 

বক্তারা বলেন , শেখ রাসেল নগর উদ্ভেধনের মাধ্যমে আগামী প্রজন্ম শেখ রাসেল সম্পর্কে জানতে পারবে, সেই সাথে অত্র এলাকায় শেখ রাসেল প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠঅ করা হবে ।

 

শেখ রাসেল নির্মলতার প্রতীক, দুরন্ত ও প্রানবন্ত নির্ভীক। ঘাতকরা আগামী দিনের সম্ভাবনাময় হাসিমাখা শিশু শেখ রাসেলকেও নৃশংসভাবে হত্যা করে। শেখ রাসেলসহ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যায় জড়িত খুনিদের দ্রুত বিচারের আওতায় এনে শাস্তি প্রদানের মাধ্যমে দেশকে কলঙ্কমুক্ত করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সবচেয়ে ছোট ভাই শেখ রাসেল ১৯৬৪ সালের ১৮ অক্টোবর ধানমন্ডির ঐতিহাসিক স্মৃতি-বিজড়িত বঙ্গবন্ধু ভবনে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকদের নির্মম বুলেট থেকে রক্ষা পাননি শিশু শেখ রাসেল। বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে নির্মমভাবে তাকেও হত্যা করা হয়। তিনি ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুলের ছাত্র ছিলেন।

Sharing is caring!