Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

 

এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নোয়াখালী সদর উপজেলায় এক ইউপি সদস্যের বাড়িতে হামলা এবং এক যুবককে কুপিয়ে জখমের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ উঠেছে।

 

শুক্রবার রাতে কাদির হানিফ ইউনিয়নের পশ্চিম রাজারামপুর গ্রামে এবং অশ্বদিয়া ইউনিয়নের আইউবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

 

কাদির হানিফ ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নং ওয়ার্ড মেম্বার (ইউপি সদস্য) আবদুর রহিম জানান, পাশের অশ্বদিয়া ইউনিয়নের আইয়ুবপুর গ্রামের হাফেজ আব্দুল বাসেদের ছেলে নাহিদের নেতৃত্বে কিশোর দলের সদস্যরা অনেকদিন রাজারামপুরে মাদক কেনাবেচাসহ নানা রকম অপরাধ সংগঠিত করে আসছে। কিছুদ আগে নাহিদকে মাদকসহ গ্রেপ্তার করে পুলিশ। জেল থেকে বেরিয়ে নাহিদ তার বিরুদ্ধে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে তথ্য দেওয়ার অভিযোগে আবদুর রহিম মেম্বারসহ রাজারামপুরের অনেককে হুমকি দিয়ে আসছে। শুক্রবার রাতে নাহিদ ও তার সহযোগীরা ইউপি সদস্য আবদুর রহিমের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ঘরের কাঁচসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র ভাংচুর করে। স্থানীয় লোকজন জানান, অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আসা ২৫/৩০ জন কিশোর ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে এলাকায় আতংক সৃস্টি করে। এসময় তারা আবদুর রহিম মেম্বারকে খোঁজাখুজি করে তাকে হাতের কাছে পেলে হত্যার হুমকি দিয়ে যায় বলেও জানান তারা।

 

খবর পেয়ে কাদির হানিফ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রহিম ঘটনাস্থলে যান। এ সময় তিনি জানান, নাহিদ ও তার সহযোগীরা অন্য এলাকা থেকে এসে রাজামামপুরে অনেকদিন থেকে মাদক সেবন, বিক্রি ও মানুষকে হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে। মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলায় নাহিদ ও তার সহযোগীরা আব্দুর রহিম মেম্বারের বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের বিচার দাবি করেন তিনি।

 

এদিকে নাহিদের বন্ধু ও স্বজনরা জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বিরোধের জেরে আবদুর রহিম মেম্বার তার লোকজন নিয়ে নাহিদের বাড়ির সামনে গিয়ে তাকে কুপিয়ে জখম করে। সেখান থেকে উদ্ধারের পর তাকে ২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

 

সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ারুল ইসলাম জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রাজারামপুরে পাল্টাপাল্টি হামলার অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। অভিযোগ তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Sharing is caring!