Sharing is caring!

এনকে বার্তা ডেস্ক::

রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনে মৃত ৫ জনের মধ্যে ৩ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী ছিলেন। মৃতদের সবাই লাইফ সাপোর্টে ছিলেন। বুধবার (২৭ মে) রাতে হাসপাতাল থেকে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রাত প্রায় ১০টার কিছু আগে লাগা আগুনে ৫ জনের মৃত্যু হয়। মৃতদের মধ্যে চারজন পুরুষ ও একজন নারী ছিলেন। মৃতরা হলেন-রিয়াজুল আলম (৪৫), খোদেজা বেগম (৭০), ভেরুন এন্থনি পল (৭৪), মো. মনির হোসেন (৭৫), মো. মাহাবুব (৫০)।

আরও বলা হয়, হাসপাতালের মূল ভবনের বাইরে আইসোলেশন ইউনিটে আগুন লাগে ওই সময় আবহাওয়া খারাপ থাকায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে মৃত ওই পাঁচজনকে নিরাপদে বাইরে বের করে আনা সম্ভব হয়নি। এই ঘটনায় ইউনাইটেড হাসপাতাল দু:খ প্রকাশ করেছে।

এর আগে, বুধবার রাত ১০টার দিকে এসি বিস্ফোরণের পর অগ্নিকাণ্ডে ওই হতাহতের ঘটনা ঘটে বলে ধারণা করা হয়।

ফায়ার সার্ভিস পরিচালক (অপারেশন ও মেইনটেন্যান্স) লেফটেন্যান্ট কর্নেল জিল্লুর রহমান বলেন, আগুনের খবর পেয়ে তাঁদের তিনটি ইউনিট হাসপাতালে যায়। মূল ভবনের বাইরে আলাদা জরুরি বিভাগে আগুন লাগে। ঘটনাস্থল থেকে পাঁচজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ফায়ার সার্ভিস সদর দপ্তরের কর্তব্যরত কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম বলেন, নিচতলায় এসি বিস্ফোরণের পর আগুন লাগে।

যোগাযোগ করা হলে ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণকক্ষ থেকে জানানো হয়, রাত ৯টা ৫৫ মিনিটের দিকে ওই আগুন লাগে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। রাত সাড়ে ১০টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়।

জানা গেছে, নিজের গাড়ির চালক থেকে ভাইরাস সংক্রমিত হয়েছিলেন আবদুল ওয়াদুদ। তার পরিবারের সদস্যদের এবং চালককে রিজেন্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে মঙ্গলবার করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ ফলাফল আসায় ওয়াদুদের পরিবারের সদস্যদের এবং চালককে হাসপাতাল থেকে মুক্তি দেয়া হয়।

Sharing is caring!