Sharing is caring!

এনকে বার্তা ডেস্ক রিপোর্ট

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। এর সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রায় এক মাসেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ রয়েছে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এছাড়াও এসময়ের মধ্যে বন্ধ হয়ে গেছে কারখানা, গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিসহ অন্যান্য সরকারি শিল্প ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানও।

যদিও কারখানা, গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিসহ শিল্প ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান সীমিত আকারে চালু করতে চাচ্ছে সরকার। এ জন্য আগামী রোববার উচ্চপর্যায়ের আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা আহ্বান করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানিয়েছে, সম্ভবত আর বাড়বে না সরকারি ছুটি। সীমিত পরিসরে কারখানা, শিল্প ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খোলা হতে পারে।

একইসঙ্গে দায়িত্বশীল আরো একটি সূত্র জানিয়েছে, সীমিত পরিসরে সবকিছু খোলা হলেও সাধারণ ছুটি বাড়ানো হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তবে ছুটি বাড়বে কি বাড়বে না সেটা রোববার বেলা ১২টায় সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সভা থেকে জানা যাবে। সভায় সভাপতিত্ব করবেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এই সভাতেই দেশের পরিস্থিতি, সাধারণ ছুটি এবং ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান খোলার ব্যাপারে আলোচনা হতে পারে।

সভা আহ্বান করার তথ্য গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের তথ্য কর্মকর্তা মাইদুল ইসলাম।

নোটিশে বলা হয়েছে, বিদ্যমান করোনা পরিস্থিতিতে কারখানা, গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিসহ অন্যান্য শিল্প ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান সীমিত আকারে চালু রাখা বিষয়ে আলোচনার জন্য আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা অনুষ্ঠিত হবে।

Sharing is caring!