Sharing is caring!

এনকে বার্তা স্বাস্থ্য ডেস্ক :

করোনার কারণে স্থবির গোটা বিশ্ব। মহামারি এই ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে খুব শিগগিরই যুক্তরাজ্যের লাখ লাখ মানুষকে আহ্বান জানানো হবে যে তারা যেন তাদের চলাচল ট্র্যাক বা চিহ্নিত করে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্তরা যাদের সংস্পর্শে এসেছেন, তাদের খুঁজে বের করতে ১৮ হাজার মানুষ নিয়োগের পরিকল্পনা করছে যুক্তরাজ্যের সরকার। এর সাথে সাধারণ জনগণকেও সংযুক্ত হওয়ার আহ্বান জানানো হবে।

কন্ট্যাক্ট ট্রেসিং হচ্ছে একটি পদ্ধতি যা সংক্রামক রোগ ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে ব্যবহার করা হয়। এটা সাধারণত যৌন রোগের ক্লিনিকে ব্যবহার করা হয়। সেখানে রোগীদের বলা হয় তারা যেসব মানুষের সাথে ঘনিষ্ঠ হয়েছেন তাদের সাথে যোগাযোগ করতে।

করোনাভাইরাস মহামারির ক্ষেত্রে, যেসব মানুষ দীর্ঘ সময় ধরে আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছেন তাদেরকে স্বেচ্ছা আইসোলেশনে যেতে বলা হয়।

এটা সাধারণত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির বন্ধু এবং পরিবারের সদস্যদের ফোনের মাধ্যমে জানানো হয়। সাথে একটা স্বয়ংক্রিয় লোকেশন ট্র্যাকিং মোবাইল অ্যাপও সংযুক্ত করা হয়।

করোনাভাইরাসের মারাত্মক প্রাদুর্ভাবের শিকার দেশগুলোতে এরই মধ্যে কন্ট্যাক্ট ট্রেসিং পদ্ধতি ব্যবহার করা হচ্ছে। যেমন হংকং, সিঙ্গাপুর, জার্মানি।

যুক্তরাজ্য মে মাসের মাঝামাঝি সময়ে কন্ট্যাক্ট ট্রেসিং অ্যাপ চালু করার পরিকল্পনা করছে। আশা করা হচ্ছে যে, কয়েক সপ্তাহ ধরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কারণে প্রাদুর্ভাব খুঁজে বের করা বা ট্র্যাক করাটা সহজ হবে।

Sharing is caring!