Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ
নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলার নরোত্তমপুর ইউনিয়নে জ্বর ও কাশিসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া বিনোদ কুমার রায় (৬০) করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে মৃত ব্যাক্তির পরিবারের সদস্যদের। এদিকে জেলা নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ৩৩জন।
বৃহস্পতিবার দুপুরে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন, নোয়াখালী জেলা সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার।
কবিরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ও করোনা ফোকাল পার্সন ডা. সঞ্জয় কুমার নাথ জানান, জ্বর ও কাশিসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে গত ২৭জুলাই সোমবার হাসপাতালে এসে নমুনা দিয়ে যান নরোত্তমপুর ইউনিয়নের নূর সোনাপুর গ্রামের বাসিন্দা বিনোদ কুমার রায়। ২৮জুলাই মঙ্গলবার নিজ বাড়ীতে মারা যান তিনি। বুধবার রাতে আসা রিপোর্টে ওই ব্যক্তির করোনা পজিটিভ আসে। মৃত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসা তার পরিবারের সদস্যদের শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এনিয়ে উপজেলায় মোট মৃতের সংখ্যা ৭জন।
জেলা সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার বলেন, জেলায় নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন আরও ৩৩জন। যার মধ্যে সদরে ৮, সুবর্ণচরে ৪, বেগমগঞ্জে ২, সোনাইমুড়ীতে ২, কোম্পানীগঞ্জে ১২ ও কবিরহাট উপজেলায় ৫জন। আক্রান্তদের মধ্যে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ রয়েছে। এনিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩০৮৯জন। এদের মধ্যে সদরে ৯০৫, সুবর্ণচরে ২১৫,  হাতিয়া ১০০, বেগমগঞ্জে ৭৬৫, সোনাইমুড়ীতে ১৬৬, চাটখিলে ১৬৩, সেনবাগে ১৫০, কবিরহাটে ৩৭৪ ও কোম্পানীগঞ্জে ২৫১জন। যার মধ্যে মারা গেছেন ৬৩জন, সুস্থ্য হয়েছেন ২২৮৫ ও আইসোলেশনে রয়েছেন ৭৪১জন রোগী।

Sharing is caring!