Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ
নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার মেঘনা নদীতে একটি মালবাহি জাহাজ ডুবে গেছে। ঘটনায় তিন নাবিক নিখোঁজ রয়েছে। মেঘনার চরে আটকা পড়েছে আরও ২টা জাহাজ। এদিকে মাছ ধরার নৌকা ডুবির ঘটনায় মাঈন উদ্দিন (৬০) এক জেলের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।
বুধবার ভোর থেকে দুপুর পর্যন্ত মেঘনা নদীর পৃথক এলাকায় এ ঘটনাগুলো ঘটে। নিহত মাঈন উদ্দিন হাতিয়া উপজেলার পশ্চিম বিরবিরি এলাকার ফকির আহমদের ছেলে।
জানা গেছে, বুধবার সকাল ১০টার দিকে সিরাজ মাঝির একটি মাছ ধরার নৌকা নিয়ে মেঘনা নদীতে যায় ১৬জন জেলে। দুপুরের দিকে পূর্ব মেঘনা নদীতে বৈরি আবহাওয়ার কারনে ডুবে যায় নৌকাটি। পাশ্ববর্তী একটি ট্রলারের সহযোগিতায় ১৫জেলেকে জীবিত উদ্ধার করা গেলেও মাঈন উদ্দিন নিখোঁজ ছিল। এর কয়েক ঘন্টা পর নদীতে ভাসমান অবস্থায় মাঈন উদ্দিনের লাশ উদ্ধার করে জেলেরা।
এদিকে বুধবার ভোরে নলচিরাঘাট-ভাসানচরের মধ্যবর্তী এলাকায় চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ছেড়ে আসে নরসিংদি জেলার পলাশ উপজেলার দেশ বন্ধু সুগার মিলের চিনি তৈরীর কাঁচামাল বোঝাই করা জাহাজ আন নুর-১, বাংলার সৈনিক-৩ ও গ্রীন পদ্মা-২।
বাংলার সৈনিক-৩ এর সারেং আবদুর রহিম জানান, ১ হাজার মেট্রিক টন চিনি তৈরীর কাঁচামাল নিয়ে আন নুর-১ জাহাজটি চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ছেড়ে আসার পর সকাল ৯টা ৫০মিনিট এর দিকে হাতিয়ার মেঘনার সাঙ্গু গ্যাস ফিল্ড থেকে ৩৫ কিলো মিটার পশ্চিমে পৌঁছানোর পর প্রবল ¯্রােত ও ঢেউ এর তোড়ে জাহাজটির তলদেশ ফেটে গিয়ে ডুবে যায়। এতে ১৩জন নাবিকের মধ্যে ১০জনকে জীবিত উদ্ধার করা গেলেও ৩নাবিক নিখোঁজ রয়েছেন।
তিনি আরও জানান, এদিকে ১হাজার ২৫০মেট্রিক টন চিনি তৈরীর কাঁচামাল নিয়ে বাংলার সৈনিক-৩ ও ১ হাজার ২০০মেট্রিক টন কাঁচা মাল নিয়ে গ্রীন পদ্মা-২ চট্টগ্রাম বন্দর থেকে বুধবার সকাল ৬টার দিকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। বেলা ১১টার ভাসান চর ও হাতিয়ার নলচিরা ঘাটের মাঝামাঝি এলাকায় পৌঁছানোর পর প্রবল ঢেউ এর তোড়ে পড়ে জাহাজ দুটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়। এতে জাহাজ গুলো বাতাস ও ¯্রােতের কবলে পড়ে চরে আটকা পড়ে। তবে ২িিট জাহাজে ২৫জন নাবিক সবাই নিরাপদে রয়েছেন।
কোস্টগার্ড হাতিয়া স্টেশান কমান্ডার বিশ্বজিৎ বড়ুয়া জানান, জাহাজ ডুবি ও জাহাজ আটকা পড়ার বিষয়টি শুনেছেন তবে বিস্তারিত কোন তথ্য দিতে পারেন নি।
হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের বলেন, মাছ ধরা নৌকা ডুবির ঘটনায় এক জেলের লাশ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

Sharing is caring!