Sharing is caring!

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ  
নোয়াখালীর চাটখিল ও সোনাইমুড়ী উপজেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। এদিকে কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রবিউল হক’সহ জেলায় আরও ৮৫জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। 
সোমবার সকালে তথ্যগুলো নিশ্চিত করেছেন, নোয়াখালী জেলা সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার।
চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ও করোনা ফোকাল পার্সন ডা. তামজিদ হোসেন জানান, উপজেলার পরকোর্ট ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড দশগরিয়া এলাকার বাসিন্দা আবুল বাসার (৭০) অসুস্থ্য অবস্থায় গত ৫আগস্ট পরীক্ষার জন্য নমুনা দিয়ে যান। ৬আগস্ট আসা রিপোর্টে উনার করোনা শনাক্ত হয়। নিজ বাড়ীতে হোম আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় তিনি মারা যান বলে রবিবার রাতে উনার পরিবারের সদস্যরা নিশ্চিত করেছেন। উপজেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৬জন।
সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ও করোনা ফোকাল পার্সন ডা. বিবেক দেব জানান, করোনা উপসর্গ নিয়ে গত ৩আগস্ট নমুনা দিয়ে যান নদনা ইউনিয়নের কালুয়াই গ্রামের বাসিন্দা মৌলভী হাসমত উল্যাহ (৯০)। ৪আগস্ট করোনা পজিটিভ আসার পর হোম আইসোলেশন থেকে উনাকে ভুলু স্টেডিয়ামের কোভিড হাসপাতালে পাঠানো হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার রাতে মারা যান তিনি। এর কয়েকদিন আগে করোনা উপসর্গ নিয়ে ঢাকায় নেওয়া হলে মারা যান ওই ব্যক্তির ছেলে আনোয়ার হোসেন। মৃতের পরিবারের আরও তিন জন করোনা আক্রান্ত রয়েছেন। উপজেলায় মোট মৃত্যু ৫।
জেলা সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার বলেন, জেলায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন আরও ৮৫জন। যার মধ্যে সদরে ২৫, সুবর্ণচরে ৬, বেগমগঞ্জে ১২, সোনাইমুড়ীতে ৪, চাটখিলে ২, সেনবাগে ২, কোম্পানীগঞ্জে ২২ ও কবিরহাটে ১২জন। জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৩৫৭৬জন। এদের মধ্যে সুস্থ্য হয়েছেন ২৫১৮, মারা গেছেন ৬৯ ও আইসোলেশনে রয়েছেন ৯৮৯জন।

Sharing is caring!