Sharing is caring!

প্রতিবেদক, হিলি (দিনাজপুৃর):

 

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে পাইকারী ও খুচরা বাজারে দিন দিন বেড়েই চলেছে ভারত থেকে আমদানিকৃত পেঁয়াজের দাম। এক সপ্তাহের ব্যবধানে কেজি প্রতি পেঁয়াজের দাম বেড়েছে প্রকার ভেদে ৩ থেকে ৪ টাকা। খুচরা বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজ প্রকারভেতে কেজি প্রতি বিক্রি হচ্ছে ৩৬ থেকে ৪০ টাকা। হাকিমপুর (হিলি) প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন প্রকার অভিযান পরিচালনা করা হয়নি।

 

হিলি বাজারের খুচরা পেঁয়াজ বিক্রেতারা জানান, আমদানি কারকরা বিভিন্ন অযুহাতে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি করে থাকেন। আমাদের বেশি দামে পেঁয়াজ কিনে বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। তবে সাধারন ক্রেতাদের সঙ্গে তাদের অনেক সময় তর্ক করতে হচ্ছে। প্রশ্নের মুখে পড়তে হচ্ছে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির বিষয়ে।

 

পেঁয়াজ কিনতে আসা কয়েকজন ক্রেতার সঙ্গে কথা বললে তারা ক্ষোপ প্রকাশ করে জানান, হঠাৎ করে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। গত দুই সপ্তাহ আগে পেঁয়াজের বাজার স্বাদ্ধের মধ্যেই ছিলো। এখন আবার বৃদ্ধি। প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন প্রকার অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে না। যার কারনে অসাধু ব্যবসায়ীরা ইচ্ছাকৃত ভাবে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি করছে। এতে করে আমরা সাধারন ক্রেতারা সমস্যায় পরি।

 

হিলি স্থলবন্দরের আমদানি রপ্তানি গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ হারুন জানান, ভারতে কিছু অঞ্চলে বন্যা হওয়ার কারনে পেয়াজের চালান নষ্ট হয়ে গেছে। যার জন্য ভারতেই পেঁয়াজের দাম বেশি। আমদানি কারকদের বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। আমদানি বেশি হলে আগামী ২০ তারিখের মধ্যে পেঁয়াজের দাম কমতে পারে বলে জানান তিনি।

 

এদিকে অভিযানের বিষয় সম্পর্কে জানতে চাইলে হাকিমপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুর রাফিউল আলম জানান, আমি ইতিমধ্যে হিলির বড় বড় পেঁয়াজ আমদানি কারকদেরসাথে আজকে মিটিং করেছি এবং বাজারের অভিযান বিষয়টিও নিয়ে দেখা হবে।

Sharing is caring!